BREAKING NEWS

৭ আষাঢ়  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কেজরিওয়ালের উপর বেজায় খাপ্পা সিঙ্গাপুর, পরিস্থিতি সামলাতে আসরে বিদেশমন্ত্রক

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: May 19, 2021 2:24 pm|    Updated: May 19, 2021 2:36 pm

Singapore fumes over Kejriwal’s claim of new Covid variant | Sangbad Pratidin

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের উপর বেজায় খাপ্পা সিঙ্গাপুর (Singapore)। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে অবশেষে আসরে নামতে হয়েছে বিদেশমন্ত্রককে। শুনতে অবাক লাগলেও এই ঘটনার নেপথ্যে কিন্তু সেই করোনা ভাইরাস। সম্প্রতি কেজরিওয়াল দাবি করেছিলেন যে সিঙ্গাপুরে মারণ ভাইরাসটির একটি নয়া স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে যা শিশুদের জন্য মারাত্মক। আর এই মন্তব্যেই ক্ষুব্ধ দ্বীপরাষ্ট্রটি।

[আরও পড়ুন: ‘তুই ছাড়া আর কেউ রইল না’, মৃত্যুপুরী গাজায় একরত্তি সন্তানকে জড়িয়ে হাহাকার বাবার]

গত মঙ্গলবার নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে কেজরিওয়াল লেখেন, “সিঙ্গাপুরে করোনার যে নয়া স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে তা বাচ্চাদের জন্য অত্যন্ত ভয়ানক। এটা ভারতে তৃতীয় ঢেউ হিসেবে ছড়িয়ে পড়তে পারে। তাই কেন্দ্র সরকারের কাছে আমার অনুরোধ, সিঙ্গাপুরের সঙ্গে বিমান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হোক। আর বাচ্চাদের জন্য ভ্যাকসিনের বিকল্প ব্যবস্থা করা হোক।” তারপরই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর টুইট ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক। কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়ে সিঙ্গাপুরের স্বাস্থ্যমন্ত্রক তোপ দাগে, ‘করোনার সিঙ্গাপুর ভ্যারিয়েন্ট বলে কিছু নেই। নয়া স্ট্রেন নিয়ে যে দাবি করা হচ্ছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা।’ দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রক আরও দাবি করে যে করোনার B.1.617 স্ট্রেনটি ভারতে উৎপন্ন হয়েছে। পরে বিষয়টি সামাল দিতে আসরে নামে ভারতের বিদেশমন্ত্রক। 

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই করোনার (Corona virus) B.1.617 স্ট্রেনকে ‘গোটা বিশ্বের জন্য বিপজ্জনক’ হিসেবে ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। এই ভারতীয় স্ট্রেনের বিরুদ্ধে করোনা টিকা কতটা কার্যকর হবে ‌তা এখনও অনিশ্চিত বলে জানায় সংস্থাটি।‘হু’ জানাচ্ছে, B.1.17 স্ট্রেনটি ব্রিটেনে (Britain) পাওয়া গিয়েছিল। আর ভারতে মিলেছিল B.1.617 স্ট্রেন। কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহে এরা দুর্বল হতে শুরু করেছে। তার বদলে আরও বিপজ্জনক হতে শুরু করেছে ভারতীয় স্ট্রেনটির দুই রূপভেদ B.1.617.1 ও B.1.617.2। প্রাথমিক বিশ্লেষণ থেকে পরিষ্কার, এই দুই স্ট্রেন খুব দ্রুত ছড়াতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে, এই স্ট্রেনের উপরে টিকা ও ওষুধের প্রভাবের বিষয়টা এখনও অনিশ্চিত।

[আরও পড়ুন: চিনকে কড়া বার্তা দিয়ে তাইওয়ানের কাছে সমুদ্রে শক্তিপ্রদর্শন মার্কিন রণতরীর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement