BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সমস্যা হলে আমায় বলুন, বার্তা সেনাপ্রধানের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 13, 2017 3:48 pm|    Updated: January 13, 2017 3:48 pm

Speak to me for grievance redressal,   Army Chief to jawans

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিএসএফ জওয়ানের ভিডিও নিয়ে হওয়া চূড়ান্ত বিতর্কে এবার মুখ খুললেন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত৷ কোনো সমস্যা হলে আমায় বলুন, এই বলে জওয়ানদের বার্তা দিলেন তিনি৷ জেনারেল রাওয়াত আরও বলেন যে জওয়ানরা তাঁকে সরাসরি চিঠি লিখে সমস্যা জানাতে পারেন৷ তাঁদের পরিচয় গোপন থাকবে বলেও আশ্বস্থ করেন তিনি৷ প্রত্যেকটি কমান্ড অফিসে একটি বাক্স রাখা থাকবে যেখানে জওয়ানরা তাঁদের অভিযোগ পত্র ফেলতে পারবেন৷ শুক্রবার  সাংবাদিকের মুখোমুখি হয়ে তিনি আরও বলেন যে পাকিস্তান ক্রমশ ভারত বিরোধী শক্তিগুলোকে কাজে লাগিয়ে ছায়াযুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে৷ পাকিস্তানকে সতর্ক করে তিনি বলেন, সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘনের জবাবে সেনা প্রয়োজন পড়লে আরও সার্জিকাল স্ট্রাইক করতে পিছপা হবে না৷

সেনাদের পাতেই দেওয়া হচ্ছে নিম্নমানের খাবার৷ এই পরিস্থিতিতেই এক ভিডিও বার্তায় দেশের মানুষের সামনে আসল ছবিটি তুলে ধরেছিলেন বিএসফ জওয়ান তেজ বাহাদুর যাদব৷ সে ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা্ঁকে মদ্যপ বলে দাগিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয় সেনার তরফে৷ যদিও তেজ বাহাদুর জানিয়েছেন, তিনি কোনও অন্যায় করেননি, শুধু তাঁর অধিকারের কথা জানিয়েছিলেন৷ তেজ বাহাদুরের ভিডিও দেখে ইতিমধ্যেই পুরো ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ তার আগেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে পড়েছিল বিএসফ৷ এক বিবৃতিতে জানানো হয়, তেজ বাহাদুরের মতো মদ্যপ জওয়ানের পক্ষেই এরকম অভিযোগ আনা সম্ভব৷ সিনিয়র অফিসারদের সঙ্গে তিনি দুর্বব্যবহার করেছেন বলেও জানানো হয়৷

ফেসবুকে এই ভিডিও পোস্ট করা ছাড়া তাঁর আর কোনও উপায় ছিল না৷ সেনাবাহিনীর নিয়ম অনুযায়ী সেনার অভ্যন্তরেই এ অভিযোগ জানাতে পারতেন তিনি৷ কিন্তু নাচার হয়েই এ পথ বেছে নিতে হয়েছে তাঁকে৷ এদিন তিনি জানান, দেশের নিরাপত্তা নিয়ে তিনি কোনও সমঝোতা করেননি৷ কোনও নিয়মও ভাঙেননি৷ তিনি শুধু তাঁর মানবিক অধিকারের কথাটিই সামনে এনেছেন৷ এর আগে সিনিয়র কম্যান্ডারের দিকে বন্দুক তাক করার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে৷ সে কথা স্বীকার করে নিয়ে ওই জওয়ান জানিয়েছেন, তিনি তা করেছিলেন৷ তবে কেন তা করেছিলেন তাও জানা উচিত৷ সে কাজের জন্য সমস্ত শাস্তি মাথা পেতেও নিয়েছেন তিনি৷ তাঁর দাবি, তিনি বিএসএফ অলরাউন্ডার হিসেবে বহুবার পুরস্কৃত হয়েছেন৷ তা সত্ত্বেও কেন তিনি এ কাজ করেছেন সেটাও জানা উচিত৷ এই ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পর তাঁর কী ইচ্ছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন পুরো বিষয়ের তদন্ত হোক৷ ইতিমধ্যেই সে নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে