BREAKING NEWS

৩০ আশ্বিন  ১৪২৮  রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পালাতে পারেন প্রণয় রায়, NDTV-র কর্ণধারের বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারির দাবি স্বামীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 16, 2018 5:23 pm|    Updated: February 16, 2018 5:23 pm

Subramanian Swamy demands probe against NDTV’s Prannoy Roy

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের একবার বিজেপি ও NDTV-র মধ্যে লেগে গেল নারদ নারদ! নীরব মোদির কায়দায় এবার দেশ ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় পালাতে পারেন সর্বভারতীয় টিভি চ্যানেল এনডিটিভি-র কর্ণধার। টুইটারে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। স্বামীর ওই টুইটটি ‘রি-টুইট’ করে পালটা তাঁকে মিথ্যাবাদী বলে তোপ দাগেন প্রণয় রায়।

[নিউ ইয়র্কের হোটেলে বহাল তবিয়তে নীরব মোদি, ধনকুবেরকে নোটিস ইন্টারপোলের]

বৃহস্পতিবার টুইটারে স্বামী অভিযোগ করেন, প্রণয় রায়ের বিরুদ্ধে অবিলম্বে লুক আউট নোটিস জারি করা হোক। এই বিষয়ে তিনি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট ও আয়কর বিভাগকে উপযুক্ত পদক্ষেপ করার আহ্বান জানান। এই বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও চিঠি দিয়েছেন। মাইক্রো ব্লগিং সাইটে তিনি লেখেন, ‘আমি ইডি ও আয়কর বিভাগকে অনুরোধ জানাচ্ছি, প্রণয় রায়ের বিরুদ্ধে লুক আউট জারি করুক। প্রধানমন্ত্রীকেও আমি চিঠি দিয়ে এ কথা জানিয়েছি। অভিযুক্ত দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে পালিয়ে যেতে পারে।’

এই প্রথম নয়, এর আগেও NDTV-র বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছিলেন স্বামী। তাঁর দাবি, ভারতে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার জন্য চ্যানেলটির অন্দরে আর্থিক দুর্নীতির শিকড় তুলে ফেলতে হবে। টুইটারে স্বামীর নতুন ইটের জবাবে অবশ্য পাটকেল ছুড়ে দিয়েছেন প্রণয় রায়ও। তিনি পালটা লিখেছেন, শুরু হল মিথ্যাবাদী স্বামীর নয়া দোষারোপের পালা।

প্রশ্ন উঠছে, স্বামী হঠাৎ আজ প্রণয় রায়ের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন কেন? গতবছরের জুন মাসে আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের ৪৮ কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগে এনডিটিভির দপ্তরে ও প্রণব রায়ের বাসভবনে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই। যদিও ওই পদক্ষেপকে সংবাদমাধ্যমের কন্ঠরোধের চেষ্টা বলে সে সময় সরব হয় চ্যানেলটি। সিবিআইকে শাসক দলকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছে বলে অভিযোগ ওঠে। এডিটরস গিল্ড বিবৃতি জারি করে জানায়, ‘সংবাদমাধ্যমের দপ্তরে পুলিশের হানা উদ্বেগজনক একটি ঘটনা।’

[নদী কোনও রাজ্যের সম্পত্তি নয়, কাবেরী ইস্যুতে রায় সুপ্রিম কোর্টের]

সে সময় অবশ্য তৎকালীন কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তিমন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নায়ডু (বর্তমানে উপরাষ্ট্রপতি) কেন্দ্রের পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়ে মন্তব্য করেন, ‘কেউ যদি কোনও ভুল করে থাকেন, তাহলে শুধুমাত্র তিনি সংবাদমাধ্যমের কর্মী বলে কেন্দ্র তাঁকে ছেড়ে কথা বলবে না।’ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা চ্যানেলটির কো-চেয়ারপারসন প্রণয় রায়ের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলাও রুজু করে। নয়াদিল্লি, দেরাদুন ও মুম্বইতে একযোগে অভিযান চালানো হয়। যদিও চ্যানেলটি কোনওরকম আর্থিক লেনদেনে বেনিযমের অভিযোগ অস্বীকার করে। এখন ঘটনা হল, প্রথমে বিজয় মালিয়া ও এখন নীরব মোদির দেশ ছেড়ে পালানোর অভিযোগকে ঘিরে উত্তাল গোটা দেশ। ব্যাঙ্কের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে, অর্থাৎ সাধারণ মানুষের কষ্টের জমানো টাকা নিয়ে মালিয়া বা নীরবের মতো অভিযুক্তরা পালিয়ে যাওয়ায় সোচ্চার দেশবাসী। এই আবেগকে হাতিয়ার করেই সম্ভবত এনডিটিভির উপরে ফের কুঠারাঘাত করতে চাইছেন সুব্রহ্মণ্যম স্বামী, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ।

[জনপ্রিয় এই স্মার্টফোনগুলি ব্যবহার করেন? বিপদ ডেকে আনছেন না তো?]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement