১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘রাষ্ট্রদ্রোহ’ মামলায় এখনই গ্রেপ্তারি নয়, সুপ্রিম রায়ে স্বস্তিতে শশী থারুর-সহ ৬ সাংবাদিক

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 9, 2021 1:43 pm|    Updated: February 9, 2021 2:00 pm

Supreme Court orders Shashi Tharoor and 6 Journalists Won't Be Arrested For Now | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) রায়ে স্বস্তিতে কংগ্রেস নেতা শশী থারুর-সহ ৬ সাংবাদিক। কৃষক মৃত্যু নিয়ে ভুয়ো তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে আপাতত তাঁদের গ্রেপ্তার করা যাবে না বলে জানিয়ে দিল শীর্ষ আদালত। দু’সপ্তাহ পর এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন নির্ধারিত হয়েছে।

সাধারণতন্ত্র দিবসে ট্র্যাক্টর ব়্যালিতে কৃষকের মৃত্যু নিয়ে টুইট করেছিলেন কংগ্রেস নেতা শশী থারুর (Sashi Tharoor)-সহ ৬ সাংবাদিক। তাঁরা ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ ওঠে। এর পরই তাঁদের বিরুদ্ধে একাধিক এফআইআর দায়ের করা হয়। গ্রেপ্তারি এড়াতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এই সাতজন। মঙ্গলবার সেই মামলার শুনানি হয় সুপ্রিম কোর্টে।

[আরও পড়ুন : প্রকাশ্যে যোগীরাজ্যের পুলিশি জুলুম! অভিযুক্তের পোশাক খুলে বেল্ট দিয়ে মারার ভিডিও ভাইরাল]

দিল্লি পুলিশের তরফে আইনজীবী ছিলেন সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা। এদিকে শশী থারুরদের হয়ে সওয়াল করেন কপিল সিব্বল। কংগ্রেস নেতা-সহ বাকিদের গ্রেপ্তারির দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে সওয়াল করেছিলেন তুষার মেহতা। তাঁদের সাময়িক রেহাই দেওয়ারও বিরোধিতা করেছিলেন তিনি। উলটোদিকে বিরোধিতা করে সিব্বল সুপ্রিম কোর্টের কাছে পরবর্তী শুনানির জন্য সময় চান। দু’পক্ষের সওয়াল জবাব শেষে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে, বিচারপতি এএস বোপান্না এবং বিচারপতি ভি সুব্রহ্মণ্যমের বেঞ্চ জানান, “আমরা নোটিস ইস্যু করছি। আপাতত তাঁদের গ্রেপ্তার করা যাবে না। পরবর্তী শুনানি ২ সপ্তাহ পর।”

প্রসঙ্গত, সাধারণতন্ত্র দিবসে কৃষকদের মিছিলে হিংসার (Farmers protest) ঘটনায় নাম জড়ায় কংগ্রেস নেতা শশী থারুরের। তাঁর বিরুদ্ধে ‘রাষ্ট্রদ্রোহে’র অভিযোগ ওঠে! নয়ডা পুলিশ শশী-সহ ৬ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে। বর্ষীয়ান কংগ্রেস (Congress) নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় আন্দোলনকারী কৃষকের মৃত্যু সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়েছেন। বাকি ছ’জন অভিযুক্ত সাংবাদিক। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন রাজদীপ সরদেশাইয়ের (Rajdeep Sardesai) মতো প্রথম সারির সাংবাদিকও। তাঁদের বিরুদ্ধে দিল্লি হিংসা নিয়ে মিথ্যে খবর ছড়ানো ও উসকানি দেওয়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে। এই মামলা থেকে বাঁচতেই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন : প্রকাশ্যে যোগীরাজ্যের পুলিশি জুলুম! অভিযুক্তের পোশাক খুলে বেল্ট দিয়ে মারার ভিডিও ভাইরাল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে