BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘টিভি সঞ্চালকের কটাক্ষের জবাবেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সিদ্ধান্ত’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2017 9:52 am|    Updated: July 1, 2017 9:52 am

Surgical strike result of insulting media queries: Manohar Parrikar

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের বর্ষপূর্তির আগেই গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের সেই অভিযান নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য তুলে ধরলেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী তথা প্রাক্তন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকর। শুক্রবার পানাজিতে শিল্পপতিদের সঙ্গে এক সভায় উপস্থিত হয়ে তিনি জানালেন, ১৫ মাস আগেই পাক অধ্যুষিত কাশ্মীরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। ২০১৫ সালে কেন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, তাও প্রকাশ্যে আনলেন পারিকর।

২০১৫ সালের ৪ জুন মণিপুরের চান্দেলে ভারতীয় সেনার কনভয়ে হামলা চালায় উত্তর-পূর্বের এনএসসিএন (খাপলাং) জঙ্গি দল। শহিদ হন ১৮ জওয়ান। সেই ঘটনায় গোটা দেশের মতো শোকস্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন পারিকরও। বলেন, “অত্যন্ত অপমানিত হয়েছিলাম। ২০০ জনের একটা ছোট্ট জঙ্গির দল ১৮ দল ডোগরা জওয়ানের প্রাণ নিয়ে নিল বলে। গোটা ভারতীয় সেনার কাছেই বিষয়টা অত্যন্ত অসম্মানজনক ছিল।” এর জবাবে ৮ জুন মায়ানমারে ঢুকে জঙ্গিদমন অভিযান চালিয়েছিল ভারতীয় সেনা। কিন্তু সেই ঘটনার পর এক টেলিভিশন সঞ্চালকের এক প্রশ্নে দারুণ অপমানিত হয়েছিলেন পারিকর। আর তার থেকেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ছক কষা শুরু হয়। কী সেই প্রশ্ন? টেলিভিশনে একটি সাক্ষাৎকারে জঙ্গিদমন অভিযান
ব্যাখ্যা করছিলেন প্রাক্তন সেনা আধিকারিক রাজ্যবর্ধন সিং রাঠৌর। তখনই তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, মায়ানমার সীমান্তে ভারতীয় সেনা যা করে দেখিয়েছে, পাকিস্তান সীমান্তে এই একই অভিযান চালানোর সাহস ও ক্ষমতা কি তাঁদের আছে? টিভির পর্দায় চোখ রেখে এই প্রশ্নেই তেতে উঠেছিলেন পারিকর। বলছেন, “তখনই মনে মনে ঠিক করেছিলাম, মুখে নয়, সঠিক সময়ে কাজে করে সেই ক্ষমতার প্রমাণ দেব। সেই মতো সেই বছর ৯ জুন থেকেই পরবর্তী সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ছক কষা শুরু হয়। ১৫ মাস আগেই পরিকল্পনা শুরু করে ফেলি। সেনা প্রশিক্ষণ থেকে অস্ত্রশস্ত্রের জোগাড় সবই হচ্ছিল, পরিকল্পনা অনুযায়ী।”

[ইঞ্জিনে আগুন, কীভাবে ১৭৪ জন যাত্রীর প্রাণ বাঁচালেন বিমানচালক?]

দিনরাত আলোচনা করে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ছক কষা হয়। সেই পরিকল্পনাই দিনের আলো দেখেছিল গত বছর ২৯ সেপ্টেম্বর । যেখানে ৭০-৮০ জন জঙ্গিকে নিকেশ করতে সফল হন ভারতীয় জওয়ানরা। তখন প্রতিরক্ষার দায়িত্বে ছিলেন পারিকরই। বলছেন, “সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে মিলেছিল চূড়ান্ত সাফল্য। জরুরি অবস্থায় সেনা উদ্ধারের জন্য হেলিকপ্টারের ব্যবস্থাও করা হয়েছিল।”

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছিলেন, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে কোনও পূর্ব পরিকল্পনা ছিল না। এমনকী মন্ত্রিসভার সদস্যরাও এ বিষয়ে ঘুণাক্ষরেও কিছু টের পাননি। তবে এবার পারিকরের এই তথ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন তুলে দিল। তবে কি পুরো পরিকল্পনাই ছিল পারিকরের? তাহলে গোটা বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা ঠিক কতটা ছিল? বিশেষজ্ঞমহলের প্রশ্ন, তাহলে কি শুধু সংবাদমাধ্যমের কটাক্ষের জেরেই এত বড় সিদ্ধান্ত? জঙ্গি নিকেশের সব কৃতিত্ব কি তবে পারিকর নিতে চাইছেন?

[চিকিৎসকের বেশে নিউ ইয়র্কের হাসপাতালে হামলা আততায়ীর, মৃত ৩]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে