২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

যৌনতায় লিপ্ত যুগলের উপর আঠা ঢেলে দিল তান্ত্রিক! জোড়া মৃত্যুর তদন্তে নেমে অবাক পুলিশও

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 23, 2022 11:08 am|    Updated: November 23, 2022 11:08 am

Tantrik asks couple to have sex in front of him, kills them | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কোন পথে এগোচ্ছে সমাজ? প্রায় দিনই নৃশংস, অমানবিক সমস্ত ঘটনায় আঁতকে উঠছেন সাধারণ মানুষ। এবার প্রকাশ্যে এল আরও এক শিউরে ওঠার মতো খবর। যুগলের মনস্কামনা পূরণের জন্য তাঁদের অদ্ভুত উপায় বাতলে দেয় এক তান্ত্রিক। বলে, তার সামনেই যৌনতায় লিপ্ত হতে হবে দু’জনকে। এবং সঙ্গমের সময়ই তাঁদের উপর আঠা ঢেলে দিল ওই তান্ত্রিক। তারপরই মৃত্যু হয় যুগলের। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমে চক্ষু চড়কগাছ পুলিশেরও।

এমনই অপ্রকৃতিস্থ ঘটনা ঘটেছে রাজস্থানের (Rajasthan) উদয়পুরে। গত ১৮ নভেম্বর জঙ্গলের ভিতর থেকে যুগলের নগ্ন দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তাদের প্রাথমিক অনুমান ছিল, হয়তো প্রেম ঘটিত কারণে পরিবারের হাতে খুন হয়েছেন ওই পুরুষ ও মহিলা। কিন্তু তদন্তে নেমে রীতিমতো হকচকিয়ে যান তদন্তকারী আধিকারিকরা। গ্রেপ্তার করা হয় ৫৫ বছরের অভিযুক্ত তান্ত্রিককে। নিজের অপরাধ স্বীকার করে নেয় সে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: জয়ের দিনই বিশ্বকাপের বাইরে আরও এক ফরাসি তারকা, পেনাল্টি মিস করে আক্ষেপ লেওনডস্কির]

পুলিশ জানায়, মৃত ব্যক্তি বছর তিরিশের রাহুল মীনা। পেশায় তিনি ছিলেন শিক্ষক। মৃত যুবতীর নাম সোনু কুনওয়ার। বয়স ২৮ বছর। পুলিশ জানতে পারে, দু’জনেরই আলাদা-আলাদা জায়গায় বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু তাঁদের পরিবারের ভালেশ কুমার নামের ওই তান্ত্রিকের উপর বিশেষ আস্থা ছিল। ইচ্ছাপূরণ শেষনাগ ভাবজি মন্দিরে গিয়ে ওই তান্ত্রিকের সঙ্গে দেখাও করতেন তাঁরা। সেখানেই পরিচয় রাহুল ও সোনু। অল্পদিনেই তাঁদের মধ্যে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। আর তারপর থেকেই স্ত্রীর সঙ্গে ঝামেলা শুরু হয় রাহুলের। সোনুর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা রাহুলের স্ত্রীকে জানিয়ে দেয় খোদ তান্ত্রিক। আর তাতেই মেজাজ হারান রাহুল ও সোনু। তান্ত্রিককে হুমকি দেন তাঁরা। এরপরই নিজের ভাবমূর্তি রক্ষা করতে খুনের ছক কষে ওই তান্ত্রিক।

গত ১৫ নভেম্বর জঙ্গলে ডেকে পাঠায় রাহুল ও সোনুকে। ৫০টি ফেভিকুইকের টিউব থেকে আঠা একটি বোতলে ঢেলে সঙ্গে করে নিয়ে যায় সে। এরপর যুগলকে বলে, তার সামনে সঙ্গমে লিপ্ত হলে সব সমস্যা মিটে যাবে। তান্ত্রিকের পরামর্শে তেমনটাই করেন রাহুল ও সোনু। আর ঠিক সেই সময়ই তাঁদের উপর আঠা ঢেলে দেয় ভালেশ। সে ভাবে, আপত্তিকর অবস্থায় তাঁদের দেহ উদ্ধার হয়ে সে সন্দেহের বাইরে থাকবে। কিন্তু সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে এবং স্থানীয়দের জিজ্ঞাসাবাদ করে তান্ত্রিকের হদিশ পায় পুলিশ। জেরায় নিজের দোষ স্বীকার করে সে। জানা গিয়েছে, একে অপরকে ছাড়াতে গিয়ে শরীর থেকে যৌনাঙ্গ আলাদা হয়ে যায় রাহুলের। সোনুর গোপনাঙ্গ ক্ষতবিক্ষত হয়। তাঁদের মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: বাংলার রাজ্যপাল পদে শপথ নিলেন সিভি আনন্দ বোস, অনুষ্ঠানে উপস্থিত মুখ্যমন্ত্রী, গেলেন না শুভেন্দু]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে