BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

শিক্ষিকার চড়ে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, বেঘোরে প্রাণ গেল পঞ্চম শ্রেণির পড়ুয়ার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 8, 2018 12:48 pm|    Updated: February 8, 2018 12:48 pm

Teacher slaps student to death in Uttar Pradesh

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শিক্ষিকার প্রশ্নে জবাব দিতে পারেনি। এর জন্য চরম মাশুল দিতে হল পড়ুয়াকে। শিক্ষিকার চড়ে মস্তিষ্কে রক্তরক্ষণের ফলে বেঘেরো প্রাণ গেল ওই ছাত্রীর। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বালিয়ায়। অভিযুক্ত শিক্ষিকা ও স্কুলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতের পরিবার। শিক্ষিকাকে আটক করেছে পুলিশ। যদিও স্কুলের সাফাই, ওই ছাত্রীটি অসুস্থ ছিল। আগেও বেশ কয়েকবার স্কুলে জ্ঞান হারিয়েছিল সে। ঘটনার দিন জ্ঞান হারানোর পর তড়িঘড়ি তাকে হাসপাতালেও নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

[স্ত্রী যৌন সংসর্গে রাজি না হওয়ায় শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করল সৎ বাবা!]

জানা গিয়েছে, বালিয়ার একটি খ্রিস্টান মিশনারি স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ত ওই কিশোরী। পরিবারের লোকেদের দাবি, মঙ্গলবার ক্লাসে পড়া ধরছিলেন রজনী উপাধ্যায় নামের ওই শিক্ষিকা। কিশোরী শিক্ষিকার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেনি। অভিযোগ, এই অপরাধে তাকে সজোরে একটি চড় মারেন শিক্ষিকা। মারের চোটে জ্ঞান হারায় ওই কিশোরী। খবর পেয়ে স্কুলে ছুটে আসেন অভিভাবকরা। তড়িঘড়ি ছাত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, শেষরক্ষা হয়নি। বুধবার সকালে মৃত্যু হয় তার।  মৃতার বাবার দাবি, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর ওই ছাত্রী সিটি স্ক্যান করা হয়েছিল। চিকিৎসক জানিয়েছেন, তাঁর মেয়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছিল। মস্তিষ্কে রক্তরক্ষণও হচ্ছিল। তাতেই ওই ছাত্রীর মৃত্য হয়েছে।  অভিযুক্ত শিক্ষিকা ও স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতার বাবা। বালিয়ার পুলিশ সুপার অনিল কুমার জানিয়েছেন, স্থানীয় রাসরা থানায় এফআইআর করেছে মৃতার পরিবার। অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে আটক করেছে পুলিশ। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে, ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[ওঝার নিদান! রোগ নিরাময়ে চন্দ্রগ্রহণের রাতে কাটা হল শিশুকন্যার মাথা]

এদিকে, এই ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে আড়াল করতেই ব্যস্ত  স্কুল কর্তৃপক্ষ। তাদের সাফাই, ওই ছাত্রীর শারীরিক সমস্যা ছিল। এর আগেও স্কুলে বেশ কয়েকবার জ্ঞান হারিয়েছিল সে। মঙ্গলবার ফের জ্ঞান হারানোর পর, তড়িঘড়ি তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, প্রাণে বাঁচানো যায়নি।

 

[আধার কার্ড ল্যামিনেট করিয়েছেন? বিপদে পড়তে পারেন কিন্তু!  ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে