৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অমিত শাহ-মোদির ‘জাত’ নিয়ে মন্তব্য, লেখকের জিভ কেটে নেওয়ার হুমকি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 12, 2017 3:42 am|    Updated: September 12, 2017 3:50 am

Telugu writer Kancha Ilaiah, receives threat for terming Vysyas as “social smugglers”

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বেঙ্গালুরুতে সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশকে খুনের ঘটনায় এখন তোলপাড় গোটা দেশ। বিজেপি ও সংঘের বিরুদ্ধে কলম ধরেছিলেন তিনি, তাই খুন হতে হয় এই প্রবীণ সাংবাদিককে। এই অভিযোগে তুলে কলকাতা-সহ দেশের বিভিন্ন শহরে রাস্তায় নেমেছেন সাধারণ মানুষ ও বিশিষ্টজনেরা। এই প্রেক্ষাপটে এবার  বৈশ্য সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে মুখ খুলে বিতর্কে জড়ালেন তেলুগু লেখক কাঞ্চা ইলাইয়া। হায়দরাবাদ পুলিশের কাছে এই বিশিষ্ট তেলুগু লেখক অভিযোগ করেছেন, তাঁকে ফোনে নিয়মিত হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

kancha_webবরাবরই দলিত-সহ পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের মানুষদের অধিকার রক্ষার পক্ষে জোরদার সওয়াল করে এসেছেন কাঞ্চা ইলাইয়া। সম্প্রতি তেলুগু ভাষায় লেখা তাঁর একটি বই প্রকাশিত হয়েছে। বইতে কাঞ্চা ইলাইয়া লিখেছেন, ‘বৈশ্যরা শুদ্র, দলিত ও ওবিসিদের ঘৃণা করে। তাঁরা কখনই দেশরক্ষার কাজে এগিয়ে আসেনি। তাই ভারতীয় সেনাবাহিনীতে বেনিয়া রেজিমেন্ট নেই। বেনিয়ারা হল শাসক। নরেন্দ্র মোদি এবং অমিত শাহ বেনিয়া সম্প্রদায়ের মানুষ। আম্বানিদের মতো দেশের বড় বড় শিল্পপতিরা এঁদের সাহায্য করে। সাধারণত বেনিয়ারা নিরামিষাশী। কিন্তু, এঁরা যদি মাংস বা গোমাংস না খায়, তাহলে চিন বা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কীভাবে যুদ্ধ করবে?’ কাঞ্চা ইলাইয়ার অভিযোগ, বইটি প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই ফোনে তাঁকে নিয়মিত হুমকি দিচ্ছে অজ্ঞাতপরিচয়ের দুষ্কৃতীরা। তিনি বলেন, ‘ ফোনে ও মেসেজ করে আমাকে নানা আপত্তিকর কথা বলা হচ্ছে। আমার জিভ কেটে নেওয়ার হুমকিও দেওয়া হয়েছে। হয়ত গৌরী লঙ্কেশের মতো ওঁরা আমাকে মেরে ফেলতে চায়।’  সোমবার গোটা ঘটনা জানিয়ে হায়দরাবাদ পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন কাঞ্চা ইলাইয়া।

 


এদিকে কাঞ্চা ইলাইয়া লেখা বই নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছে বৈশ্য সম্প্রদায়ের মানুষেরা। সোমবার অন্ধ্রপ্রদেশ ও তেলেঙ্গানায় প্রতিবাদ মিছিলও করে বৈশ্যদের বিভিন্ন সংগঠন। অন্ধ্রপ্রদেশ আর্য বৈশ্য মহাসভার প্রেসিডেন্ট জে ভেঙ্কাটেশ্বর বলেন, মহাত্মা গান্ধী-সহ আর্য বৈশ্য সম্প্রদায়ের অনেকেই স্বাধীনতা আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। তাই নিজের মন্তব্যের জন্য আর্য বৈশ্য সম্প্রদায়ের কাছে কাঞ্চা ইলাইয়াকে ক্ষমা চাইতে হবে। তিনি যদি ক্ষমা না চান, তাহলে অন্ধ্রপ্রদেশের যেখানেই তিনি যাবেন, সেখানে আর্য বৈশ্যরা বিক্ষোভ দেখাবে।

[বৈদিক ব্রাহ্মণদের সংখ্যালঘু তকমা দিতে চলেছে কেন্দ্র]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে