১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পাওয়া গেল সন্দেহজনক ব্যাগ, পাঠানকোটে জারি চূড়ান্ত সতর্কতা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 29, 2017 6:24 am|    Updated: May 29, 2017 6:29 am

Terror alert sounded in Pathankot over recovery of suspicious bag

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জঙ্গি হানার আশঙ্কায় পাঞ্জাবের পাঠানকোটে জারি করা হল চূড়ান্ত সতর্কতা।  রবিবার রাতে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে মামুন সেনাঘাঁটির পাশে একটি সন্দেহজনক ব্যাগ উদ্ধার করে পুলিশ।  তারপরই জারি করা হয় সতর্কতা।  ইতিমধ্যে পাঠানকোট শহর ও মামুন সেনাঘাঁটি জুড়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক তল্লাশি অভিযান।  এক শীর্ষ পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, সেনার সঙ্গে যৌথভাবে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।  উদ্ধার হওয়া ব্যাগ থেকে বেশ কয়েক জোড়া পোশাক উদ্ধার হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে সেনার পোশাক পরে তিন জঙ্গি হামলা চালায় পাঞ্জাবের গুরদাসপুরের দিনানগর থানায়।  ওই হামলায় মৃত্যু হয় ৭ পুলিশকর্মীর। গতবছর, একইভাবে সীমান্তের ওপার থেকে আসা পাক মদতপুষ্ট চার জঙ্গি হামলা চালায় পাঠানকোট বায়ুসেনা ঘাঁটিতে।  শহিদ হন ৭ জওয়ান।  ওই হামলার  পর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক তলানিতে ঠেকে।  হামলার বদলা নিতে ভারতীয় সেনা পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়ে গুড়িয়ে দেয় জঙ্গি ঘাঁটি।

[সুকমা শহিদদের পাশে দাঁড়ানোয় মাওবাদীদের রোষে সাইনা, অক্ষয়]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারতীয় সেনার কাছে প্রবল মার খেয়ে ক্ষোভে ফুটছে পাকিস্তান।  কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা লস্কর জঙ্গিদের বেশ কয়েকটি কল ট্র্যাক করে জানতে পেরেছেন, ভারতে ২৬/১১-র ধাঁচে হামলা চালাতে তৈরি হচ্ছে লস্কর-ই-তৈবা৷ মুম্বই, রাজস্থান, পাঞ্জাব-সহ দেশের চারটি গুরুত্বপূর্ণ শহরে লস্করের ফিদায়েঁ জঙ্গিরা হামলা চালাতে পারে বলে সতর্কতা জারি করা হয়েছে৷ কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা এই বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে একটি রিপোর্ট পেশ করেছে অতি সম্প্রতি৷ ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০-২২ জন লস্কর জঙ্গিদের একটি দল ইতিমধ্যেই নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতের মাটিতে ঢুকে পড়েছে৷ দেশের অন্তত চারটি বড় শহরে হামলার ছক কষেছে জঙ্গিরা৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক এই রিপোর্ট পেয়েই দেশ জুড়ে সমস্ত পুলিশ কর্তা, ক্রাইম ব্রাঞ্চ, সাইবার সেল ও জঙ্গি দমন শাখার আধিকারিকদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে৷ কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের কাছ থেকে সতর্কবার্তা পেয়ে ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র এটিএস (অ্যান্টি টেররিজম স্কোয়াড) রাজ্য জুড়ে ব্যাপক তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে৷

গত ১৩ মে মুম্বইয়ে অন্তত ২৬ জন পাক নাগরিক অবৈধভাবে ভারতে ঢুকে পড়েছে বলে সতর্ক করেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা৷ ওই নাগরিকদের মধ্যে বেশ কয়েকজন আইএসআই চর রয়েছে বলেও জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা৷ মুম্বইয়ের সব হোটেলকে সতর্ক করে পুলিশ জানিয়েছে, সচিত্র পরিচয়পত্র ছাড়া কোনও ব্যক্তিকে যেন থাকতে না দেওয়া হয়৷ খবর রয়েছে, ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের সদস্যরা গত বেশ কয়েক মাস ধরে মুম্বই-সহ দেশের অন্যান্য শহরে হামলার ‘রেইকি’ চালাচ্ছে৷ মুজাহিদিনের প্রতিষ্ঠাতা রিয়াজ ভাটকল ও তার দাদা ইকবাল পাক গুপ্তচর সংস্থার আশ্রয়ে করাচিতে নিরাপদে বসে ভারতে মুম্বই হামলার পুনরাবৃত্তি চায় বলেও জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা৷

[আমেরিকা, দক্ষিণ কোরিয়াকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ফের মিসাইল ছুড়লেন কিম]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে