BREAKING NEWS

২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্বচ্ছতার বার্তা দিতে অভিনব প্রয়াস কুম্ভে, আকর্ষণের কেন্দ্রে ‘টয়লেট কাফেটেরিয়া’

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 20, 2019 3:36 pm|    Updated: January 20, 2019 3:51 pm

Toilet Cafeteria at Kumbha

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  ত্রিবেণী সঙ্গমে প্রায় দেড় মাসের কুম্ভমেলা সুসম্পন্ন করতে যোগী সরকারের চেষ্টার ত্রুটি নেই। এবছর বেশ কয়েকটি নতুন ব্যবস্থা করা হয়েছে। যার মধ্যে এই মুহূর্তে নজর কেড়েছে – আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি টয়লেট কাফেটেরিয়া। এত বড় মেলার কোথায় শৌচকর্ম করবেন, এই ভাবনা থেকে পুণ্যার্থীদের রেহাই দিয়েছে এমন ব্যবস্থা। মেলাজুড়ে এক লক্ষেরও বেশি এধরনের শৌচালয় তৈরি করা হয়েছে। ফলে মেলা চত্বর পরিচ্ছন্ন রাখা খুব কঠিন কাজ বলে মনে হচ্ছে না।

এবছর কুম্ভমেলার আয়োজনে আলাদা গুরুত্ব দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। এর জন্য ৪৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন যোগী আদিত্যনাথ। প্রশাসনিক স্তরে প্রত্যেকের উপর কড়া নির্দেশ ছিল, মেলার আয়োজনে কোনওরকম ত্রুটি রাখা চলবে না।  প্রয়াগরাজ প্রশাসন সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনেই সবরকম ব্যবস্থা করা হয়েছে। মেলার পয়ঃপ্রণালী ব্যবস্থা আরও উন্নত করতে তৈরি হয়েছে অস্থায়ী ‘টয়লেট কাফেটেরিয়া’। সারি দিয়ে বসানো হয়েছে কমোড। টয়লেট কাফেটেরিয়ার বাইরে লেখা বেশ কয়েকটি বার্তা। ‘শৌচালয় ব্যবহার করুন, নিজেকে সুরক্ষিত রাখুন’, ‘শৌচকর্মের পর ভাল করে হাত ধুয়ে নিন’ – এমনই কিছু লিখিত সতর্কতার মাধ্যমে পুণ্যার্থীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। মেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশকর্মীদের হিসেব অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টা এই টয়লেট কাফেটেরিয়া পরিচ্ছন্ন রাখার ভার নিয়েছেন ২০০০০ স্বেচ্ছাসেবক। প্রত্যেকের ৮ ঘণ্টা করে কাজ। এদের নাম দেওয়া হয়েছে – স্বচ্ছ দূত।

                          [ফের কাঠগড়ায় Zomato, খাবার অর্ডার করে এ কী পেলেন ব্যক্তি!]

এবছর মহাত্মা গান্ধীর দেড়শোতম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজ্যজুড়ে স্বচ্ছতা অভিযানের ডাক দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। তাতেই বাড়তি গুরুত্ব পেয়েছে প্রয়াগরাজের কুম্ভ মেলার পরিচ্ছন্নতা। এই মেলা পৃথিবীর অন্যতম জনপ্রিয়, যেখানে লক্ষ কোটি মানুষ জমায়েত হন পুণ্যলাভের আশায়। এমন এক মিলনক্ষেত্রের আয়োজন করা খুব সহজ নয়। পরিকাঠামোগত বেশ কিছু দুর্বলতা থাকায় এতদিন কেবল পুণ্য়ের টানে কুম্ভ মেলায় পৌঁছলেও, অনেক অসুবিধার মুখে পড়তে হত তীর্থযাত্রীদের। এবার তার অনেকটা লাঘব হয়েছে বলে মত পুণ্য়ার্থীদের একাংশের। বিশেষত নতুন ব্যবস্থা – টয়লেট কাফেটেরিয়া দেখে তাঁরা খুশি এবং নিশ্চিন্ত। মেলা চলবে চৌঠা মার্চ পর্যন্ত। আরও বেশি জনসমাগম হবে বলে ধারণা আয়োজকদের। ৫৫ দিনের মেলার শেষ দিন পর্যন্ত সুষ্ঠুভাবে চালানো এখনও চ্যালেঞ্জ যোগী প্রশাসনের কাছে।  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে