BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

উন্নাও মামলা: নির্যাতিতার বাবাকে খুনের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত কুলদীপ-সহ ৭

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: March 4, 2020 1:54 pm|    Updated: March 4, 2020 1:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উন্নাও কাণ্ডে নয়া মোড়। উন্নাওয়ের নির্যাতিতার বাবাকে খুনের মামলায় দোষী সাব্যস্ত হল বিজেপির বহিষ্কৃত বিধায়ক কুলদীপ সিং সেনেগার-সহ ৭। বুধবার দিল্লির তিসহাজারি আদালত কুলদীপ-সহ সাতজনকে দোষী সাব্যস্ত করে। ২০১৮ সালে পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু হয়েছিল উন্নাওয়ের নির্যাতিতার বাবার। এই মামলায় অভিযুক্ত ছিল কুলদীপ-সহ আরও অনেকে। এদিন সাতজনকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত। বাকি চারজনকে বেকসুর খালাস করা হয়।

উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বরে ২০১৭ সালের ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয় কুলদীপ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ এবং পকসো আইনে দোষী সাব্যস্ত করা হয় কুলদীপকে। বহিষ্কৃত বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেনেগারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল আদালত। দিল্লির তিসহাজারি আদালতই সেই রায় দিয়েছিল। কারাদণ্ডের পাশাপাশি ২৫ লক্ষ টাকা জরিমানার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কুলদীপকে। এবার অন্য একটি মামলাতেও দোষী সাব্যস্ত করা হল বিতর্কিত এই নেতাকে।

[আরও পড়ুন: উন্নাও ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কুলদীপের, দিতে হবে ২৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণও]

কুলদীপের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, নিজের রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে অভিযোগ থেকে মুক্ত হতে একাধিক পন্থা অবলম্বন করে সে। এমনকী সাক্ষী লোপাটের জন্য ষড়যন্ত্র করে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে ধর্ষিতার বাবা ও আরেক আত্মীয়কে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হয়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। পরবর্তী সময়ে আদালতে কুলদীপের বিরুদ্ধে পকসো-সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের হয়। এই মামলার জেরে কুলদীপের বিধায়ক পদ বাতিল হয়ে যায়। দল থেকেও বহিষ্কার করা হয় তাকে। কুলদীপকে সাহায্য করার অভিযোগে মামলা হয় তার সঙ্গী শশী সিংয়ের বিরুদ্ধেও।

কিন্তু তার বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ না থাকায় আদালত তাকে বেকসুর খালাস করে দিয়েছে। ধর্ষণ মামলায় পুলিশের ভূমিকায় আস্থা রাখতে না পারায় সিবিআইয়ের আবেদন জানায় কিশোরীর পরিবার। তা মঞ্জুর হয়। তদন্তভার যায় সিবিআইয়ের হাতে। শেষপর্যন্ত সাজা ঘোষণা হয় কুলদীপের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement