১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

হারের জেরে বিধ্বস্ত মহাজোট, উপনির্বাচনে আলাদা লড়বে সপা-বসপা!

Published by: Tanujit Das |    Posted: June 4, 2019 3:38 pm|    Updated: June 4, 2019 4:09 pm

Mahagathbandhan in Uttar Pradesh crumbles, SP-BSP separates away

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবারই যে ইঙ্গিত মিলেছিল, একদিনের মধ্যেই তা সত্যিও হল৷ সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে ইতি পড়তে চলেছে উত্তরপ্রদেশে মহাজোটের মধুচন্দ্রিমা পর্বে৷ মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলন করে বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিলেন, সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে জোটে নয়, আসন্ন ১১টি বিধানসভা উপনির্বাচনে একাই লড়বেন তাঁরা৷ ‘বুয়া’র এই বার্তা আসার পরেই নড়েচড়ে বসেন ‘ভাতিজা’ অখিলেশ৷ তিনিও ঘোষণা করেন, শীঘ্রই একক লড়াইয়ের প্রস্তুতি শুরু করবে সপা৷

[ আরও পড়ুন: লোকসভা নির্বাচনে ২৭ হাজার কোটি টাকা খরচ বিজেপির, জানাল সমীক্ষা  ]

সোমবার দলীয় বৈঠকে যে বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করেছিলেন বসপা নেত্রী মায়াবতী৷ এদিনও সেই বিষয়গুলিই সাংবাদিকদের সামনেও বলেন৷ উত্তরপ্রদেশের মহাজোটের মুখ থুবড়ে পড়ার সম্পূর্ণ দায় সমাজবাদী পার্টির কাঁধেই চাপান তিনি৷ অভিযোগের সুরে বলেন, নিজের ঘর গোছাতে ব্যর্থ সপা৷ যে যাদব ভোটব্যাংকের উপর ভিত্তি করে উত্তরপ্রদেশে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করতে নেমেছিল অখিলেশরা৷ সেই যাদবকূলই তাঁদের থেকে মুখ ফিরিয়েছে৷ নিজেদের ভোটব্যাংক ধরে রাখতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ অখিলেশ অ্যান্ড কোম্পানি৷ নিজের ঘর বাঁচাতেও ব্যর্থ অখিলেশ৷ এবং সেকারণেই পরাজিত হয়েছেন অখিলেশের স্ত্রী ডিম্পল যাদব৷ এমনকী, এই ভোট কোনওভাবে বিএসপির দিকেও আসেনি৷ গতকাল দলীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠকেও উত্তরপ্রদেশে সপার গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মায়াবতী৷ পাশাপাশি শিবপাল যাদব ও কংগ্রেসের ভোট কাটাকাটির বিষয়টিও উল্লেখ করেন এই দলিত নেত্রী৷ কর্মীদের হতাশ না হওয়ার বার্তা দিয়ে মায়াবতী জানান, ২০১৪-য় শূন্য আসন পাওয়া বিএসপি ২০১৯-এ ১০ টি আসন পেয়েছে। ফলে আগামী দিনে হতে চলা উপনির্বাচনগুলিতে একক ক্ষমতায় লড়বে দল৷ ঠিক যেমনটা মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে লড়েছে৷ 

মঙ্গলবার বিএসপি সুপ্রিমোর এই ঘোষণার পরক্ষণেই এই বিষয়ে সমাজবাদী পার্টির অবস্থান স্পষ্ট করেন অখিলেশ যাদব৷ তিনি জানান, ‘‘জোট ভাঙলে অবশ্যই আমি এই বিষয়ে ভাবব৷ জোট না থাকলে ১১ বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনেই একক লড়াইয়ের প্রস্তুতি শুরু করবে সমাজবাদী পার্টি৷’’

[ আরও পড়ুন: মায়ের সামনে কিশোরীকে ধর্ষণ, প্রতিবাদ করায় প্রৌঢ়াকে খুন করল ব্যক্তি ]

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের আগে গতবছরই উত্তরপ্রদেশের কৈরানা, ফুলপুর ও গোরক্ষপুরে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়৷ যেখানে আশাতীত ফল করে অবিজেপি দলগুলি৷ বিশেষ করে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নিজের কেন্দ্র গোরক্ষপুরেই পরাজিত হয় বিজেপি৷ এরপরই মহাজোটের ভাবনা মাথাচাড়া দেয় জাতীয় রাজনীতিতে৷ ২৫ বছরের শত্রুতায় ইতি টেনে একমঞ্চে আসতে দেখা যায় এসপি-বিএসপিকে৷ কংগ্রেসকে বাদ দিয়েই উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনী ময়দানে নামেন ‘বুয়া-ভাতিজা’ জুটি৷ কিন্তু ফলাফল ঘোষণা হতে দেখা যায়, পুরোপুরি মুখ থুবড়ে পড়েছে মহাজোট৷ সমস্ত সংখ্যাতত্ত্বকে গরমিল করে উত্তরপ্রদেশের চাবিকাঠি নিজেদের দখলেই রেখেছে গেরুয়া শিবির৷ গতবারের তুলনায় আসন কমলেও, ৮০ আসন বিশিষ্ট এই রাজ্যে বিজেপি একাই পেয়েছে ৬২টি আসন৷ এবং তাঁর জোটসঙ্গী আপনা দল পেয়েছে ২টি আসন৷ অন্যদিকে মহাজোটের বিএসপি পেয়েছে ১০টি আসন৷ এবং এসপির ঝুলিতে গিয়েছে মাত্র ৫টি আসন৷ কংগ্রেসের ভাগ্যে জুটেছে মাত্র একটি আসন৷ দীর্ঘদিনের আসন আমেঠিতে পরাজিত হয়েছেন খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কাছে পরাজিত হয়েছেন তিনি৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে