BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অমিত শাহর কাছে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে নালিশ, ধনকড়ের আচরণে ক্ষুব্ধ শাসকদল

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 29, 2020 3:09 pm|    Updated: October 29, 2020 3:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠকে রাজ্য প্রশাসনকে নিয়ে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)। রাজ্যে আল-কায়দার জাল বিস্তার, অবাধে বোমা তৈরির কারখানার রমরমা বলে কার্যত বদনামই করলেন। আমলাদের কি রাজনৈতিক কাজের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে? সাংবাদিক বৈঠকে এসব প্রশ্ন তুলে দিলেন ধনকড়। নাম না করে ফের সরাসরি নিশানা করলেন রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ করপুরকায়স্থকে। প্রশ্ন তুললেন, অবসরপ্রাপ্ত ডিজি এই পদ পেয়ে কী করছেন? এর বিরোধিতায় তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছে শাসকদল তৃণমূল।

পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর (Amit Shah) সঙ্গে বৈঠক করেন এ রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান জগদীপ ধনকড়। তার আগে বুধবারই তিনি পৌঁছেছিলেন দিল্লিতে। সেখান থেকে ফিরে নভেম্বর মাসের পুরোটাই দার্জিলিংয়ে থাকার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল। তবে এদিন সকলেরই নজর ছিল অমিত শাহ-ধনকড়ের বৈঠকের দিকে। বৃহস্পতিবার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ধনকড় যেভাবে ফের রাজ্যের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন, তাতে অনেকটাই ইঙ্গিত মেলে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর কী কথাবার্তা হয়েছে। যদিও এ নিয়ে সরাসরি কোনও বক্তব্য করেননি রাজ্যপাল।

[আরও পড়ুন: আর রাখঢাক নয়, এবার সরাসরি বিজেপিকে সমর্থনের কথা ঘোষণা করে দিলেন মায়াবতী!]

রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভেঙে পড়েছে, বাড়ছে রাজনৈতিক হিংসা, জঙ্গিমূলক কার্যকলাপ ছড়িয়ে পড়ছে। এমনই নানাবিধ অভিযোগে তিনি ফের সরব হয়েছেন। তবে এবার দিল্লি থেকে। ধনকড়ের বক্তব্য, এ রাজ্যে একজন নিরাপত্তা উপদেষ্টা আছেন, যিনি অবসরপ্রাপ্ত ডিজিও। কিন্তু তিনি কী করছেন? শুধুই কি রাজনৈতিক কাজে যুক্ত থাকাই তাঁর কর্তব্য? তিনি আরও বলেন যে রাজ্যের আইপিএস ও আমলাদের সঙ্গে তিনি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে চেয়ে বারবার বার্তা পাঠিয়েছেন। কিন্তু কেউ তাতে সাড়া দেননি। এমনকী মুখ্যমন্ত্রীর নজরে বিষয়টি আনার পরও লাভ হয়নি। নাম না করে এই বক্তব্যে যে রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্রকে নিশানা করেছেন ধনকড়, তা স্পষ্ট।

[আরও পড়ুন: মুম্বইয়ে সাধারণ যাত্রীদের জন্য চালু লোকাল ট্রেন, কবে বাংলায় মিলবে পরিষেবা?]

তাঁর দিক থেকে এ ধরনের অভিযোগ নতুন কিছু নয়। কিন্তু দিল্লির দরবারে রাজ্যকে যেভাবে উপস্থাপিত করেছেন রাজ্যেরই সাংবিধানিক প্রধান, তার ধরন দেখে ক্ষুব্ধ রাজ্যের শাসকদল। তাদের একটা বড় অংশেরই অভিযোগ, রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির রিপোর্ট কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে পেশ করতে গিয়ে ধনকড় বস্তুত বিজেপির হয়েই কথা বললেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement