BREAKING NEWS

২৩ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ৮ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

মহিলার মোবাইল চুরি সরকারি ক্লার্কের! ভাইরাল বেধড়ক মারের ভিডিও

Published by: Sulaya Singha |    Posted: June 25, 2019 6:36 pm|    Updated: June 25, 2019 6:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অদ্ভুত এ দেশ। এই দেশেরই একপ্রান্তে যখন এক ট্যাক্সি চালক যাত্রীর ১০ লক্ষ টাকা হাসি মুখে ফিরিয়ে দেন, তখন অন্যপ্রান্তে এক মহিলার মোবাইল চুরি করে ধরা পড়ে যান এক সরকারি কর্মী! আর চোর যদি হাতেনাতে ধরা পড়ে, তবে তার কী হাল হতে পারে, আন্দাজ করাই যায়। চুরির অপরাধে সরকারি ওই বুকিং ক্লার্ককে বেধড়ক মারধর করেন মহিলা। যে দৃশ্যের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ভাইরাল।

ঘটনা গত বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ের। বাণিজ্যনগরীর সেন্ট্রাল রেলওয়ে স্টেশনের টিকিট কাউন্টার থেকে ট্রেনের টিকিট কাটেন এক মধ্যবয়সি মহিলা। সেই সময়ই সেখানে মোবাইলটি ফেলে আসেন তিনি। অনেক সময় এমন ভুল আমার-আপনার মতো অনেকেই করে থাকেন। মহিলাও টিকিট কেটে মোবাইলটি হাতে তুলে নিতে ভুলে গিয়েছিলেন। আর সেই সুযোগেই মোবাইলটি হাতিয়ে নেন কর্তব্যরত ক্লার্ক। নাম মনোজ জয়সওয়াল। মহিলা ফিরে এসে তাঁকে জিজ্ঞেস করায় ক্লার্ক সাফ জানিয়ে দেন, সেখানে কোনও ফোন ছিলই না! কোনও মোবাইল পড়ে থাকতে দেখেননি তিনি। কিন্তু মহিলা নিশ্চিত ছিলেন, এই জায়গাতেই তিনি তাঁর ফোনটি ফেলে গিয়েছেন। তাই ক্লার্কের কথা বিশ্বাস হয়নি তাঁর।

বান্ধবীকে সঙ্গে নিয়ে সোজা বুকিং অফিসের ভিতর ঢুকে পড়েন। এদিক ওদিক চাইতেই দেখেন ক্লার্কের আসনের নিচে পড়ে রয়েছে তাঁর মোবাইলের কভারটি। সন্দেহ আরও বাড়ে। সময় নষ্ট না করে ক্লার্কের পকেট খুঁজতে শুরু করেন তিনি। ব্যস, সন্দেহ সত্যি করেই পকেট থেকে বেরিয়ে পড়ে মোবাইলটি। তখন আর পালাবার পথ কোথায়! ক্লার্ককে কষিয়ে চড় মারেন ওই মহিলা। সঙ্গে গালিগালাজও করতে থাকেন। মনোজ অবশ্য গোটা বিষয়টা নির্বিকারেই মেনে নেন। আশেপাশের কর্মীরাও প্রতিবাদ জানাননি। সেই দৃশ্যই ক্যামেরাবন্দি করেন মহিলার বান্ধবী। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

[আরও পড়ুন: অর্থাভাবে ধুঁকছে বিএসএনএল, কর্মীদের বেতন দিতে কেন্দ্রের কাছে সাহায্যের আর্তি]

ক্লার্কের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ না করে আইন নিজের হাতেই তুলে নেন মহিলা। যে কারণে অনেকেই তাঁর সমালোচনা করেছেন। নেটিজেনদের একাংশের মতে, মহিলার সেই সময় পুলিশের কাছে যাওয়া উচিত ছিল। তবে ক্লার্ক যা করেছেন, সে বিষয়টিও অত্যন্ত নিন্দনীয়। ডেপুটি স্টেশন সুপারের রিপোর্টের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই মনোজ জয়সওয়ালকে চাকরি থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: আগস্টেই রেলে নির্বাচন, মোদি হাওয়ায় আধিপত্য খোয়ানোর আশঙ্কায় বাম-কংগ্রেস]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement