৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ইয়েস ব্যাংক মামলায় অনিল আম্বানিকে তলব করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: March 16, 2020 11:52 am|    Updated: March 16, 2020 11:52 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এবার ইয়েস ব্যাংক কেলেঙ্কারির সঙ্গে নাম জড়াল অনিল আম্বানির। সোমবার আর্থিক দুর্নীতির একটি মামলায় রিলায়েন্স গ্রুপের চেয়ারম্যান অনিলকে তলব করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

[আরও পড়ুন: ব্যর্থ লন্ডনে পালানোর চেষ্টা! মুম্বই বিমানবন্দরে আটক ইয়েস ব্যাংক কর্তার মেয়ে]

জানা গিয়েছে, সোমবার মুম্বইয়ে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের অফিসে অনিল আম্বানিকে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। ইয়েস ব্যাংকের বিরুদ্ধে তদন্তের খাতিরে অনিল আম্বানিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়েছে বলে খবর।তবে শারীরিক অসুস্থতার দাবি জানিয়ে তারিখ পিছনোর অনুরোধ জানিয়েছেন আম্বানি। আর্থিক সংকটে পড়া ইয়েস ব্যাংকের কাছ থেকে যে সব বড় কর্পোরেট সংস্থা মোটা অঙ্কের ঋণ নিয়েছে, তাদের মধ্যে অন্যতম অনিল আম্বানির সংস্থা। ইয়েস ব্যাংকের কাছ থেকে ১২ হাজার ৮০০ কোটি টাকার ঋণ নেয় তাঁর সংস্থা। তবে সময়মতো সেই ঋণ মেটায়নি আম্বানির সংস্থা বলেই খবর। অনিল আম্বানির সংস্থা ছাড়াও ইয়েস ব্যাংকের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছে ভোডাফোন, এসেল, আইএলএফএস, ডিএইচএফএল। গত ৬ মার্চ সাংবাদিক বৈঠক করে এই কথা জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। এই সব বড় সংস্থার প্রধানদের ইয়েস ব্যাংক সংক্রান্ত তদন্তে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকবে ইডি।

উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরে ধুঁকছিল ইয়েস ব্যাংক। সম্প্রতি অবস্থা আরও খারাপ হয়। গ্রাহকদের লেনদেন নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বিষয়টি সামনে আসতেই ব্যাংকের শেয়ারের দাম হু হু করে পড়তে থাকে। পরিস্থিতি সামাল দিতে আসরে নামেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ ও রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া। ব্যাংকের পুনর্গঠনের জন্য নয়া স্কিমও ঘোষণা করেছে RBI। এমন পরিস্থিতিতে ব্যাংক কর্তাদের বেনিয়মের কথাও সামনে আসে। তদন্তে নামে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এরপরই ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা রাণা কাপুরের বাড়িতে হানা দেয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। শনিবার রাণা কাপুরকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের মুম্বইয়ের অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দীর্ঘক্ষণ জেরার রবিবার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।      

[আরও পড়ুন: ইয়েস ব্যাংকের গ্রাহকদের জন্য সুখবর, টাকা তোলার উর্ধ্বসীমা থেকে উঠছে নিয়ন্ত্রণ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement