২ শ্রাবণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নগদহীন লেনদেনের উপকারিতা বোঝাতে এবার ভগবান শ্রীকৃষ্ণ এবং তাঁর পরমবন্ধু সুদামার উদাহরণ টানলেন যোগী আদিত্যনাথ। যাঁরা এখনও নোট বাতিলের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সন্দিহান তাঁদের উদ্দেশে এবার উত্তরপ্রদেশের নয়া মুখ্যমন্ত্রী যোগীর মন্তব্য, যখন সুদামা শ্রীকৃষ্ণের সঙ্গে দেখা করেছিলেন তখন তাঁকে কোনও নগদ অর্থ দেননি। যদি ৫০০০ বছর আগে এমন লেনদেন হতে পারে তবে এখন কেন নয়? প্রশ্ন তুলেছেন যোগী।

[আর আলোচনা নয়, কাশ্মীরে ‘ডাইরেক্ট অ্যাকশন’ নেবে কেন্দ্র]

সোমবার লখনউয়ে একটি অনুষ্ঠানে এসে এমন অভিনব উদাহরণ দেন আদিত্যনাথ। পুরাণ বলছে, অত্যন্ত দারিদ্রের সম্মুখীন হয়ে কতকটা নিরুপায় সুদামা দ্বারকাধীশ শ্রীকৃষ্ণের কাছে সাহায্যপ্রার্থী হয়ে দেখা করতে আসেন। তিনি একমুঠো চাল নিয়ে বাল্যবন্ধু কৃষ্ণের সঙ্গে দেখা করতে আসেন। দারিদ্রক্লীষ্ট সুদামার এর থেকে বেশি কিছুই দেওয়ার ছিল না। কিন্তু সুদামার বন্ধুবাৎসল্য এবং নম্রতা কৃষ্ণের মন ছুঁয়ে যায়। তবে কৃষ্ণের কাছে কিছুই চাইতে পারেন না সুদামা। দুঃখের কথা ভাবতে ভাবতে নিজের কুঁড়েঘরের সামনে যখন সুদামা পৌঁছলেন তখন দেখতে পেলেন, কুঁড়েঘরের বদলে সেখানে বিরাজমান প্রাসাদোপম অট্টালিকা এবং বহুমূল্য জিনিসপত্র।

[বাতিল নোটে তৈরি হচ্ছে বালিশ, হেলান দিয়ে আয়েস করুন অনায়েসে]

তবে শ্রীকৃষ্ণ এবং সুদামার এই কাহিনির সঙ্গে নরেন্দ্র মোদির নোট বাতিল সিদ্ধান্তের অভাবনীয় যোগসূত্র স্থাপন করেছেন যোগী। গত বছর নভেম্বর মাসের ৮ তারিখ আচমকাই দেশ জুড়ে ৫০০, ১০০০ টাকার নোট বাতিল করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী। সমালোচকরা তখন এই সিদ্ধান্তের জন্য মোদির মুণ্ডপাত করতেও পিছপা হননি। অনেকেই বলেছিলেন গরিব, দিন আনি দিন খাই মানুষদের এই সিদ্ধান্তের জেরে দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হবে। এর প্রভাব ভোটবাক্সেও পড়বে বলে জানিয়েছিলেন বহু রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ। কিন্তু সব জল্পনাকে উড়িয়ে দিয়ে উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জিতে ক্ষমতায় আসে বিজেপি। সেই সূত্র ধরেই এমন উদাহরণ দিয়েছিলেন যোগী। তাঁর মতে, দুর্নীতিকে সমূলে উৎখাত করতে ক্যাশলেস লেনদেনই শ্রেয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং