৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইন্টারনেটের যুগে পাল্লা দিয়ে উন্নত হচ্ছে প্রযুক্তির। আর তার জেরেই কর্মহীন হলেন অগণিত মানুষ। ৫৪১জন কর্মীকে ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিল খাদ্য সরবরাহকারী সংস্থা জোম্যাটো। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, গ্রাহক পরিষেবা উন্নত করতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: গোমূত্র থেকে ক্যানসারের ওষুধ বানাচ্ছে সরকার, চাঞ্চল্যকর দাবি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর]

জোম্যাটো অবশ্য বিবৃতি দিয়ে কর্মী ছাঁটাইয়ের কথা জানিয়েছে। ওই খাবার সরবরাহকারী সংস্থা জানায়, ”ছাঁটাইয়ের জন্য কর্মীরা সমস্যায় পড়বেন আমরা জানি। তবে পরিস্থিতির চাপে আমরা এই দুঃখজনক সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের ন্যূনতম দু’মাস এবং সর্বোচ্চ চার মাসের বেতন অতিরিক্ত দেওয়া হবে। তাছাড়া পারিবারিক স্বাস্থ্য বিমার মেয়াদও জারি থাকবে ২০২০ সালের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত। এছাড়া বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে কেরিয়ার গড়ার সুযোগও পাবেন তাঁরা। গত কয়েকমাসে আমরা নিজেদের প্রযুক্তিগত দিকটি উন্নত করার চেষ্টা করছি। তবে এখনও আধুনিকীকরণ সম্পূর্ণ হয়নি। অনেক কাজ বাকি। অটোমেশনের মাধ্যমে গ্রাহকরা যাতে অর্ডার সম্পর্কিত তথ্য সরাসরি পান সেই ব্যবস্থা করছি।”

[আরও পড়ুন: প্রয়াত বর্ষীয়ান আইনজীবী তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাম জেঠমালানি]

এবার থেকে প্রযুক্তির মাধ্যমে গ্রাহকের খাবার সংক্রান্ত অনুসন্ধানের ক্ষেত্রে অটোমেশন পদ্ধতি অবলম্বন করবে জোম্যাটো। তার জেরে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা এআই প্রযুক্তির সাহায্য করবে ওই খাবার সরবরাহকারী সংস্থা। ওই প্রযুক্তির মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর পাবেন গ্রাহকরা। প্রযুক্তির আধুনিকীকরণে বিভিন্ন জায়গা থেকে কর্মী ছাঁটাই শুরু হয়েছে বলেই অনুমান করা হচ্ছে। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন শহরে নতুন গোল্ড প্রোগ্রাম নামে বিশেষ এক পরিষেবা চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। এই পরিষেবা চালু হলে খাবার অর্ডার দিতে গেলে বড়সড় ছাড় পাবেন জোম্যাটো অ্যাপ ব্যবহারকারী।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং