BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিত্যযাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে সোমবার থেকে পথে আরও ৪০০ বাস

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 12, 2020 9:21 pm|    Updated: June 12, 2020 9:21 pm

An Images

ফাইল ছবি

নব্যেন্দু হাজরা: ট্রেন বন্ধ। তাই কলকাতার সঙ্গে শহরতলি এবং জেলার মানুষের যোগাযোগের জন্য সোমবার থেকে আরও ৪০০টি বাস নামতে চলেছে। হুগলি, হাওড়া, গড়িয়া, বেহালা, ব্যারাকপুর, বারাসতের সঙ্গে এই বাসগুলি শহরের যোগাযোগ রক্ষা করবে। ২০০টি নন এসি বাস চালাবে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম বা এসবিএসটিসি। এবং ২০০টি এসি বাস চালাবে একটি বেসরকারি সংস্থা। তাদের স্পেশ্যাল পারমিট দেওয়া হয়েছে। এসি সবকটি বাসই ভলভো।

৮ জুন থেকে সরকারি বেসরকারি অফিস খুলে গেলেও ট্রেন বা মেট্রো এখনও চালু হয়নি। ফলে জেলার মানুষের কর্মস্থলে যেতে বেগ পেতে হচ্ছিল। কিছু রুটে বাস চালু হলেও তাতে অনেকেই আসতে পারছিলেন না। তাদের সমস্যা সমাধানেই এবার এই বাস চালু। সোমবার থেকেই এই পরিষেবা শুরু হয়ে যাবে। পাশাপাশি চালানো হচ্ছে জেলার সঙ্গে শহরের যোগাযোগ রাখতে ভেসেলও। ইতিমধ্যেই ১১০০টির বেশি সরকারি বাস চলছে রাস্তায়। শহরেই নামছে আড়াই হাজারের মতো বেসরকারি বাসও। তবে শুক্রবার সকাল থেকেই বৃষ্টি চলায় এদিন বেসরকারি বাস কিছুটা কম ছিল। ফলে সকালে অফিসে বেরিয়ে বাসের অভাবে দাঁড়াতে হয়েছে নিত্যযাত্রীদের। বিকেলে বাড়ি ফেরার সময়ও কোনও কোনও রুটে কিছুটা সমস্যা হয়।

[ আরও পড়ুন: সশরীরে শুনানি নিয়ে কলকাতা হাই কোর্টে জারি অচলাবস্থা, বৈঠকের পরও অধরা সমাধান ]

সোমবার থেকে শ্রীরামপুর, বালি, বেহালা, জোকা, সাঁতরাগাছি, নৈহাটি, হাবড়ার মতো ২৪টি রুটে চলবে বেসরকারি ভলভো বাস। তাছাড়া শহরতলির অন্যান্য জায়গা থেকেও এসবিএসটিসির বাস চলবে। পরিবহন দপ্তরের কর্তারা জানাচ্ছেন, ট্রেন না চলা পর্যন্ত সাধারণ মানুষ যাতে প্রয়োজনে কলকাতায় যাতায়াত করতে পারেন, তাই এই পরিষেবা।

শুক্রবার সকাল থেকেই বৃষ্টি। ফলে রাস্তায় বাসের সংখ্যা এদিন ছিল আরও কম। রাস্তায় বেরিয়ে বাস, অটো না পেয়ে নাজেহাল নিত্যযাত্রীরা। বাসের লাইনে ছিল ছাতার সারি। দাঁড়িয়ে থেকেই তাই রাস্তাতেই ভিজতে হল যাত্রীদের। তবে সকালের দিকে ভিড় থাকলেও বেলা বাড়তেই রাস্তাঘাট বেশ ফাঁকা হতে শুরু করে। ফলে গুটিকয়েক যাত্রী নিয়েই বাস ছুটেছে বহু রুটে। অটো ট্যাক্সিও অন্য দিনের তুলনায় কম ছিল। যাঁরা ট্যাক্সিতে চড়েছেন তাঁদের কার্যত পকেট কেটেছেন চালকরা। এদিকে এদিনই বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেট এবং বাস-মিনিবাস সমন্বয় সমিতির তরফে ভাড়ার আয় ব্যয়ের দীর্ঘ তালিকা পরিবহন দপ্তরে জমা দেওয়া হয়। জানানো হয় গত কয়েকদিন সরকারের কথায় তারা বাস চালালেও তাদের লোকসান বাড়ছে। তাই অবিলম্বে ভাড়া বৃদ্ধি করা হোক।

[ আরও পড়ুন: অবশেষে করোনা মুক্ত, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement