BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শহরের উন্নয়নের কাজ দ্রুত শেষ করতে ২০০ মিলিয়ন ডলার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 23, 2016 11:54 am|    Updated: June 23, 2016 11:54 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: পুর বাজেটের আগেই কলকাতাবাসীর জন্য সুখবর৷ শহরের পুর উন্নয়নের কাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে বিপুল পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করল এশিয়ান ডেভলপমেন্ট ব্যাঙ্ক৷ কোনও নির্দিষ্ট একটি প্রকল্পে এশিয়ার কোনও শহরে একসঙ্গে এত পরিমাণ টাকা আগে বরাদ্দ হওয়ার নজির এর আগে নেই৷

বুধবার কলকাতা পুরসভা মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় জানান, “মঙ্গলবারই দিল্লিতে এডিবি কর্তাদের সঙ্গে পুর আধিকারিকদের বৈঠকে এই বরাদ্দ চূড়ান্ত হয়েছে৷ বেহালা, যাদবপুর এলাকার জন্য পানীয় জল ও ভূগর্ভস্থ নিকাশি ব্যবস্থার জন্য প্রায় ২০০ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে৷ পুজোর আগেই টেন্ডার ডেকে এই কাজে হাত দেবে পুরসভা৷ দ্রুত কাজ শেষ হলেই উপকৃত হবে বেহালা ও সংযোজিত এলাকার বাসিন্দারা৷”

বর্ষায় চেনা জলের ছবির দেখা এবারে মেলার সম্ভাবনা নেই৷ কারণ, বেহালা এলাকার যে সব ওয়ার্ডে বর্ষার জল জমার ছবি ধরা পড়ে,  সেখানে এশিয়ান ডেভলপমেন্ট ব্যাঙ্কের এই বরাদ্দে বাকি কাজও সম্পন্ন হবে দ্রুত৷ কে ই আই পি প্রকল্পের দ্বিতীয় পর্যায়ের বাকি অংশের ভূগর্ভস্থ নিকাশির ব্যবস্থার কাজও আড়াই বছরের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্য নিয়েছে পুরসভা৷ যা পরবর্তী কালে জোকার সঙ্গে সংযোগের ব্যবস্থাও রাখা হচ্ছে৷

একই সঙ্গে এই বরাদ্দের টাকা দিয়েই গার্ডেনরিচ থেকে জল এবারে পৌঁছে যাবে বেহালা ও গড়িয়ার একটা বড় অংশে৷ যার জন্য ভূগর্ভস্থ বুস্টার পাম্পিং স্টেশন ছাড়াও ১২টি ওভারহেড জলাধার তৈরি করা হবে বলেও জানান মেয়র৷ কোম্পানি পুকুর,  জোকা ট্রাম ডিপো, বাইশ বিঘা, প্রান্তিক পল্লি ও রায়পুর পল্লিতে হবে বুস্টার পাম্পিং স্টেশন৷ গার্ডেনরিচের জল পরিশোধন ক্ষমতা আরও বাড়ানো হচ্ছে প্রায় ২৫ মিলিয়ন গ্যালন৷ যা ওই এলাকায় মিটারের মাধ্যমে মনিটরিং করা হবে বলেও খবর৷

এডিবি-র এই বরাদ্দে রেকর্ডেও নাম জড়াল কলকাতা পুরসভা৷ পুরসভা সূত্রে খবর, এর আগে কোনও শহরের কোনও নির্দিষ্ট একটি প্রকল্পের জন্য সর্বোচ্চ ১০৫ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল৷ এবার বেহালার বিস্তীর্ণ এলাকায় গার্ডেনরিচের পানীয় জল পৌঁছে দিতেই সাড়ে ৪৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে৷ যা এডিবির ইতিহাসে রেকর্ড৷ একই সঙ্গে এই কাজে কলকাতা পুরসভার ১০০ কোটি ও রাজ্য সরকারের সাহায্য ধরলে, সংখ্যাটি প্রায় ৭০০ কোটি টাকায় পৌঁছয়৷

দু’টি প্রকল্পের জন্য প্রায় ১৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে৷ পুরসভা সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরেই বেহালায় গার্ডেনরিচের জল পৌঁছানো যাচ্ছিল না৷ জমি সমস্যাও ছিল৷ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্য সরকারের সাহায্যে মিলতেই সরকারি দফতরের তরফে জমি বরাদ্দ করা হয়৷ ইতিমধ্যে ২৫ মিলিয়ন গ্যালন জল তৈরির জন্য পরিকাঠামো গড়ে তুলতে একটি সংস্থাকে টেন্ডার দেওয়া হয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement