BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারিতেই কাজ, কলকাতার রাজপথে নামল প্রায় ৪ হাজার বেসরকারি বাস

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: July 2, 2020 5:28 pm|    Updated: July 2, 2020 5:29 pm

An Images

নবেন্দু হাজরা: কথা মেনে রাস্তায় না নামালে বেসরকারি বাস তুলে নিয়ে চালানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। নরম কথায় কাজ না হলে কড়া ব্যবস্থা নেবেন বলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পরই বৃহস্পতিবার কলকাতার পথে নামল প্রায় চার হাজার বেসরকারি বাস। ডিজেলের লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ ও ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে গত সোমবার থেকে রাস্তায় বাস নামাতে অনিচ্ছুক ছিলেন বাসমালিক সংগঠনের নেতারা। যার ফলে সোমবার থেকে কলকাতায় চলছিল হাতে গোনা কিছু বাস। হয়রানির মধ্যে পড়তে হয় নিত্যযাত্রীদের। মুখ্যমন্ত্রীর বাস তুলে নেওয়ার হুঁশিয়ারির পরই বৃহস্পতিবার রাজপথে চিত্র বদল। এক ধাক্কায় ৩৮০০ বেসরকারি বাস পথে নেমেছে এদিন। তবে কিছু রুটে বাস কম থাকায় যাত্রী দুর্ভোগের খবরও মিলেছে।

এদিন উত্তর থেকে দক্ষিণ, শহরের সব প্রান্তেই বাসের সংখ্যা ছিল চোখে পড়ার মতো। চেনা ভোগান্তির খবর মেলেনি। রাস্তায় দেখা গিয়েছে মিনিবাসও। পুরনো ভাড়াতেই এদিন চলেছে বাসগুলি। পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, “এ দিন শহরে প্রায় ১৮০০ সরকারি এবং ৩৮০০ বেসরকারি বাস চলছে। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক।” প্রসঙ্গত, বুধবারই পরিবহণ দপ্তরের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মালিকরা একাধিক নতুন দাবি তোলেন। সেই দাবি বিবেচনার আশ্বাসে কিছুটা রফাসূত্র বেরয় সেখানে।

[আরও পড়ুন: ‘কেন্দ্রের কথা শুনলে বাংলার করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকত’, তোপ রবিশংকর প্রসাদের]

আর তারপরই বৃহস্পতিবার থেকে ফের রাস্তায় বাস নামানোর আশ্বাস দেন মালিক সংগঠনের নেতারা। তবে এই সমধানসূত্র যে দীর্ঘস্থায়ী নয়, তাও পরিষ্কার করে দিয়েছেন তাঁরা। মালিকদের দাবি, আপাতত কিছুদিন বাস নামবে। সরকার তাদের দাবিগুলো পূরণের ব্যাপারে কী ভাবে, তা দেখেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত। যাত্রীস্বার্থে সরকার যে কোনওকিছুর সঙ্গেই আপস করবে না, তা মঙ্গলবারই পরিষ্কার করে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। জানিয়ে দিয়েছিলেন, বাস না নামালে তা তুলে নেবে সরকার। মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় কিছুটা চাপে পড়ে যান মালিকরা। আর তারপরই বরফ গলতে শুরু করে।

[আরও পড়ুন: করোনা কাঁটায় আটকে বিল, পাশ করাতে ভারচুয়াল অধিবেশন হতে পারে বিধানসভায়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement