২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

আসবাবে টাকা লুকিয়েও শেষরক্ষা হল না, ব্যাংক প্রতারণায় ধৃতের বাড়ি থেকে উদ্ধার নগদ ৭ কোটি!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 1, 2020 1:44 pm|    Updated: October 1, 2020 1:52 pm

An Images

অর্ণব আইচ: ব্যাংক প্রতারণা কাণ্ডের তদন্তে নেমে চোখ ছানাবড়া লালবাজারের (Lal Bazar) গোয়েন্দা বিভাগের আধিকারিকদের। অভিযুক্তের ঘর থেকে উদ্ধার হয়েছে নগদ প্রায় ৭ কোটি টাকা। এরপরই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।  ঘটনার পিছনে অন্যকারও যোগ হয়েছে কি না, ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তা জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা।

ঘটনার সূত্রপাত চলতি বছরের আগস্ট মাসে। ওই সময় ICICI ব্যাংকের তরফে অভিযোগ করা হয়। বলা হয়, ইংল্যান্ডের বাসিন্দা তাঁদের এক গ্রাহক ব্যাংক প্রতারণার শিকার। কোনও এক চক্র তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ৭০ লক্ষ টাকা উধাও করে দিয়েছে। এই অভিযোগ পাওয়া মাত্রই তদন্তে নামে লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগ। শেকসপীয়র সরণি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। তদন্ত শুরুর কিছুদিনের মধ্যে বেহালার বাসিন্দা এক যুবকের নাম উঠে আসে। তাঁর উপর নজরদারি শুরু করে গোয়েন্দারা।

[আরও পড়ুন: ক্ষমতার হস্তান্তর, নিজের চেয়ার সঙ্গে নিয়েই অফিস বদলালেন রাজীব সিনহা]

এরপর বুধবার রাতে বেহালার বাসিন্দা গৌরব শেঠওয়ানি নামে ওই যুবকের বাড়িতে হানা দেয় গোয়েন্দা আধিকারিকরা। সেই সময় অভিযুক্তের বাড়িতে তল্লাশি চালাতেই ঘরের বিভিন্ন জায়গা থেকে মেলে প্রচুর নগদ টাকা। আলমারি থেকে বিছানা, এমনকী চায়ের পেটিতেও ছিল টাকার বান্ডিল! কাউন্টিং মেশিনে উদ্ধার হওয়া টাকা গুণে দেখা যায় সেখানে ৬.৯৫ কোটি টাকা রয়েছে। কিন্তু কীভাবে টাকা আদায় করত ধৃত? জানা গিয়েছে, গ্রাহকদের ফোন করে গৌরব জানাত, তাঁদের অ্যাকাউন্টে সমস্যা রয়েছে। কিছু নথি ওই মুহূর্তে না মিললে অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেওয়া হবে। এরপর গ্রাহকদের একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলত অভিযুক্ত। সেই অ্যাপের মাধ্যমেই গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে থাকা আত্মসাৎ করত। গৌরবের সঙ্গে আর কার যোগ রয়েছে? কতদিন ধরে চলছে এহেন কার্যকলাপ?  আর কত মানুষ গৌরবের ফাঁদে পড়ে সর্বস্ব খুইয়েছেন, এখন এসবই জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: NRS-এর প্রাক্তন ডেপুটি সুপারের গাড়িতে লাগানো অবসরপ্রাপ্ত সেনা অফিসারের ফলক ছিঁড়ল দুষ্কৃতীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement