২২  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ঐত্রীর পরিবারকে শাসানির জের, বরখাস্ত আমরি মুকুন্দপুরের ইউনিট হেড জয়ন্তী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 19, 2018 12:30 pm|    Updated: January 19, 2018 12:30 pm

AMRI Mukundapur suspends Unit Head Jayanti Chatterjee

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মৃত শিশুর পরিবারকে শাসানির জেরে বরখাস্ত আমরি মুকুন্দপুরের ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়। বুধবার ভুল চিকিৎসায় আড়াই বছরের শিশু ঐত্রী দে-র মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতালে বিক্ষোভ দেখায় পরিবার। তখন ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায় তাঁদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ। এমনকী সংবাদমাধ্যমের সামনে মৃত শিশুর পরিবারকে শাসানিও দেন জয়ন্তী। তারপরই তাঁর বিরুদ্ধে পূর্ব যাদবপুর থানায় এফআইআর দায়ের করে দে পরিবার। বৃহস্পতিবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জয়ন্তী অনির্দিষ্টকালের জন্য ছুটিতে পাঠায় বলে জানা যায়। কিন্তু শুক্রবারই ২ আমরি কর্তা যথাক্রমে সিইও রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বরখাস্তের দাবিতে হাসপাতালের সামনে আমরণ অনশনে বসার হুমকি দেন ঐত্রীর মা শম্পা দে। তারপরই কার্যত চাপে পড়ে জয়ন্তীকে সাসপেন্ডের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। যদিও চিকিৎসায় গাফিলতির জন্যই ঐত্রীর মৃত্যু হয়েছে কিনা সে বিষয়ে কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি হাসপাতালের তরফ থেকে।

[২ কর্তাকে বরখাস্তের দাবি, আমরির সামনে আমরণ অনশনে বসার হুঁশিয়ারি ঐত্রীর মায়ের]

প্রসঙ্গত, মুকুন্দপুরের আমরি হাসপাতালে আড়াই বছরের ঐত্রী দে-র মৃত্যুতে প্রশ্নের মুখে শহরের বেসরকারি হাসপাতালের পরিষেবা। গত সোমবার থেকে আমরিতে চিকিৎসাধীন ছিল ঐত্রী। বুধবার সকালে মারা যায় সে। পরিবারের অভিযোগ, ভুল ইনজেকশনে দেওয়ার পরই ঐত্রীর শারীরিক অবস্থা অবনতি হয় ও কিছুক্ষণ পর মারা যায় সে। এই নিয়ে বুধবার তুলকালাম হয় আমরিতে। ক্যামেরায় সামনেই নিজেকে মস্তান পরিচয় দিয়ে মৃতার পরিবারকে শাসানি দেন ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়। তাতে উত্তেজনা আরও বাড়ে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে যেমন থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতার পরিবার, তেমনি হাসপাতালের সিইও রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধেও এফআইআর হয়েছে। অভিযোগ জমা পড়েছে স্বাস্থ্য কমিশনেও। বস্তুত, বৃহস্পতিবার সকালে কালীঘাটের বাড়িতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে পর্যন্ত দেখা করেছেন ঐত্রীর বাবা-মা। সঠিক তদন্ত ও দোষীদের শাস্তির আশ্বাস দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু ২ দিন পেরিয়ে গেলেও কারও বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়ায় হাসপাতালের সামনে আমরণ অনশনে বসার হুঁশিয়ারি দেন শম্পা দে। তারপরেই শুক্রবার বিকেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বরখাস্ত করে জয়ন্তীকে।

[হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই ঐত্রীর মৃত্যু, উল্লেখ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে