BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্কে মুখ ফেরাল প্রতিবেশীরা, ৮ ঘণ্টা পর্ণশ্রীর বাড়িতে পড়ে বৃদ্ধের দেহ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 31, 2020 1:52 pm|    Updated: July 31, 2020 2:48 pm

An Images

অর্ণব আইচ: বেনিয়াপুকুর (Beniapukur) কাণ্ডের পুনরাবৃত্তি এবার পর্ণশ্রীতে। বাড়িতেই মৃত্যু হয়েছিল অসুস্থ একাকী বৃদ্ধের। তিনি করোনা (Corona Virus) আক্রান্ত ছিলেন, এমনটাও নয়। কিন্তু যদি মৃত্যুর নেপথ্যে থেকে থাকে মারণ ভাইরাস, স্রেফ সেই আতঙ্কে দেহ ছুঁলেন না প্রতিবেশীরা। প্রথমে পুলিশকে জানিয়েও কোনও ফল মেলেনি বলেই অভিযোগ।

জানা গিয়েছে, পর্ণশ্রীর একে পাল রোডের বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে একাই থাকতেন অনিমেষ বর নামে ৮০ বছরের ওই বৃদ্ধ। বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। তবে তাঁর করোনার উপসর্গ ছিল বলে জানা নেই কারও। ফলে করোনা পরীক্ষাও হয়নি। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার বৃদ্ধকে মৃত অবস্থায় ঘরে পড়ে থাকতে দেখেন প্রতিবেশীরা। কিন্তু করোনা আতঙ্কে বৃদ্ধের কাছে যাননি কেউই। পরে স্থানীয় ওয়ার্ড-কোঅর্ডিনেটর ও পর্ণশ্রী থানায় ফোন করেন এলাকার বাসিন্দারাই। এরপর পুলিশ-প্রশাসনের টানাপোড়েনের কারণে প্রায় ৮ ঘণ্টা বাড়িতেই পড়ে থাকে দেহ। দীর্ঘক্ষণ পর পুলিশ দেহটি উদ্ধারের ব্যবস্থা করে।

[আরও পড়ুন: ‘প্লাজমা দিলেই মিলবে খাবার’, করোনা মোকাবিলায় অভিনব উদ্যোগ নবগ্রাম পঞ্চায়েতের]

এপ্রসঙ্গে ওয়ার্ড কোঅর্ডিনেটর বলেন, “ওই ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। তবে করোনা পরীক্ষা করানো হয়নি। ফলে তিনি আক্রান্ত ছিলেন কি না তা কারও জানা নেই।” প্রসঙ্গত, কলকাতা থেকে জেলা, গোটা রাজ্যজুড়ে প্রতিনিয়ত এহেন ঘটনার কথা উঠে আসছে। কোথাও করোনা আতঙ্কে দেহ দাহে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছেন প্রতিবেশীরা। ফলে দীর্ঘক্ষণই বাড়িতেই পড়ে থাকছে দেহ। যা কখনই উচিত নয়। কোথাও আবার করোনায় মৃতের দেহ উদ্ধারের জন্য পুলিশ-প্রশাসন-স্বাস্থ্যভবন কারও কাছে আর্জি জানিয়েও সুরাহা পাচ্ছেন না পরিবারের সদস্যরা। বুধবার বিকেলেই বেনিয়াপুকুরের থানার ক্রিস্টোফার রোডের বাসিন্দা এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছিল। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ হওয়ায় আত্মীয়রা তাঁর দেহ দাহের আয়োজন করতেই বাধা হয়ে দাঁড়ায় প্রতিবেশীরা। ফলে দীর্ঘ ১৮ ঘণ্টা ঘরেই পড়ে থাকে দেহ। কিন্তু এর শেষ কোথায়? উঠছে প্রশ্ন।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশ হয়ে কলকাতায় চিনা অক্সিমিটার পাচারের ছক, ধরলেন বিএসএফের গোয়েন্দারা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement