BREAKING NEWS

১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

এ কী কাণ্ড! CNCI-এর অনুষ্ঠানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পদবীই ‘ভুলে’ গেলেন সঞ্চালিকা, তারপর…

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 7, 2022 4:00 pm|    Updated: January 7, 2022 4:48 pm

Anchor of CNCI program forgot Bengal CM Mamata Banerjee's surname | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এ কী বিপত্তি! অনুষ্ঠান মঞ্চে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদবী বেমালুম ভুলে গেলেন সঞ্চালিকা। যদিও স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতেই পরিস্থিতি সামলে নিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রীই। ঠিক কী ঘটেছিল?

শুক্রবার চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধনে ভারচুয়ালি যোগ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Bengal CM Mamata Banerjee)। উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। সেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান কিছুটা গড়াতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভাষণ দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়। সেই সময় মুখ্যমন্ত্রীর নাম উচ্চারণ করলেও পদবী বেমালুম ভুলে যান সঞ্চালিকা। বিষয়টিতে বেশ অসন্তুষ্ট হন মমতা। তবে নিজের স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতেই পরিস্থিতি সামাল দেন মুখ্যমন্ত্রী। 

[আরও পড়ুন: কোভিডবিধি মেনেই হবে গঙ্গাসাগর মেলা, শর্তসাপেক্ষ অনুমোদন দিল কলকাতা হাই কোর্ট]

চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের (CNCI) দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধনে এই ভারচুয়াল অনুষ্ঠান পূর্বপরিকল্পিত ছিল। করোনা আবহে কেউই সশরীরে হাজির হয়ে ক্যাম্পাসের ফিতে কাটার ঝুঁকি নেননি। ভারচুয়ালি উপস্থিত ছিলেন এ রাজ্যের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী – নিশীথ প্রামাণিক, সুভাষ সরকার, ছিলেন সাংসদ জন বার্লা, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। দীর্ঘদিন পর কেন্দ্র-রাজ্যের যৌথ প্রকল্পের সূচনায় প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতির দিকে নজর ছিল সব মহলের। অনুষ্ঠান শুরুর পর মুখ্যমন্ত্রীকে বক্তব্য রাখার অনুরোধ জানান সঞ্চালিকা। মমতা বলেন, “ধন্যবাদ সঞ্চালিকাকে। আমার পদবীটা ভুলে গিয়েছেন। হয়তো নার্ভাসনেসের জন্য।” তিনি আরও বলেন, “কলকাতার অনুষ্ঠান। প্রধানমন্ত্রীর জন্য এসেছি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী দু’বার ফোন করেছেন।”

এদিন মুখ্যমন্ত্রী জানান, চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস তৈরির ২৫ শতাংশ খরচ দিয়েছে রাজ্য। ১০ একর জমির উপর তৈরি ৪৬০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে রাজ্য়ের খরচ ১৩৪ কোটি। কেন্দ্র খরচ করেছে প্রায় ৫০০ কোটি। প্রধানমন্ত্রীকে রাজ্যের ভূমিকা সম্পর্কে বলতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করলেন, করোনা কালে এই ক্যাম্পাসে কাজ শুরু করা খুবই  প্রয়োজন ছিল সেসময়। তাই আগেই তার উদ্বোধন করে চালু করে দিয়েছিল রাজ্য সরকার। 

[আরও পড়ুন: ‘কেন্দ্রের গাইডলাইনই জানেন না রাজ্যপাল’, প্রধানমন্ত্রীর সামনেই ধনকড়কে তোপ মমতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে