১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘চিন কি আমাদের ভূমির অংশ দখল করেছে?’, টুইটে অমিত শাহকে খোঁচা অভিষেকের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 9, 2020 4:24 pm|    Updated: June 9, 2020 4:24 pm

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: একুশের লক্ষ্যে বাংলায় প্রথম ভারচুয়াল জনসভা থেকে জনসম্পর্ক বার্তা দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। কিন্তু সেই ভারচুয়াল সভা শুরুর প্রায় ২৪ মিনিট আগে শাহকে খোঁচা দিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) টুইট করেন। দুর্দিনে অমিত শাহকে (Amit Shah) একবারও বাংলার জন্য কিছু বলতে না দেখা গেলেও এ প্রশ্নের জবাব তিনি দেবেন বলে আশা রাখা রাখেন বলে টুইট করেন যুব তৃণমূল সভাপতি। বাংলা এবং ইংরাজি দুই ভাষাতেই তিনি দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন রেখেছেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ, ‘চিন আমাদের ভূমি দখল করেছে কি না?’ যদিও এদিন ভারচুয়াল সভা থেকে অনেক প্রসঙ্গ নিয়ে বললেও চিনের ইস্যু এড়িয়ে গিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিন অভিষেক টুইটে লেখেন, ‘মাননীয় অমিত শাহজি, এই সংকটের সময়ে বাংলা আপনার মুখ থেকে একটাও কথা শুনতে পায়নি, কিন্তু এই প্রশ্নটার জবাব দেওয়ার জন্য আপনি আজ ১ মিনিট সময় দেবেন বলে আমাদের আশা- চিন আমাদের ভূমির অংশ দখল করেছে কি না?’ এদিন যদিও চিন প্রসঙ্গ বক্তব্যে এড়িয়ে গিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ভারচুয়াল সভা শেষের পর ফের টুইট করেন অভিষেক। লেখেন, ‘সেই একই বাধা গতে ভিত্তিহীন বক্তব্য অমিত শাহজির। তৃণমূলকে হটানোর স্বপ্ন ছাড়া আর কোনও কথা নেই। আমি আবার তাঁকে প্রশ্ন করতে চাই, চিনা সেনা কবে আমাদের ভূমি ছাড়বে বলতে পারেন?’

[আরও পড়ুন: ‘চিনা সেনা কি লাদাখে ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করেছে?’, রাজনাথকে সরাসরি প্রশ্ন রাহুলের]

উল্লেখ্য, চিন সীমান্তে প্রায় মাসখানেক ধরে ভারত ও চিনের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। অশান্তির আবহে দুই দেশই সীমান্তে বহু সেনা মোতায়েন করেছে। একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে, চিনা সেনা ভারতীয় ভূখণ্ডের অনেকটাই ভিতরে প্রবেশ করেছে। অথচ ভারত সরকার এই ইস্যুতে আশ্চর্যজনকভাবে নীরব। প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বা প্রতিরক্ষামন্ত্রী কারও গলাতেই এই ইস্যু নিয়ে আক্রমণাত্মক সুর শোনা যায়নি। কিছুদিন আগে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং স্বীকার করেন, লাদাখ সীমান্তে চিন প্রচুর ফৌজ মোতায়েন করেছে। এদিনও রাজনাথকে একহাত নিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। সীমান্তের পরিস্থিতি নিয়ে দেশবাসীকে জানান, বারবার মোদি-শাহের কাছে আবেদন করেছেন তিনি। এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকেও চিন নিয়ে খোঁচা দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement