BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভুল ইঞ্জেকশনের বলি আড়াই বছরের শিশু, তুলকালাম আমরি হাসপাতালে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 17, 2018 9:18 am|    Updated: January 17, 2018 9:30 am

An Images

গৌতম ব্রহ্ম: ভুল ইঞ্জেকশনের আড়াই বছরের এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগে তুলকালাম মুকুন্দপুরের আমরি হাসপাতালে। অভিযোগ, বুধবার সকালে একটি ইঞ্জেকশন দেওয়ার পরই শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। কিছুক্ষণ পরই মারা যায় সে। ঘটনার পর হাসপাতালে চত্বরে তুমুল বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন পরিবারের লোকেরা। চোখের সামনে নিজের শিশুকন্যার মৃত্যু দেখে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন শিশুটির মা। ঘটনায় আমরি হাসপাতালে বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবারের লোকেরা। যদিও চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ অস্বীকার করেছে আমরি কর্তৃপক্ষ। তাঁদের দাবি, অভ্যন্তরীণ তদন্তে গাফিলতির কোনও প্রমাণ মেলেনি। তাই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে শিশুটির দেহের ময়নাতদন্ত করা হোক।

[সোনারপুরে বৃদ্ধাকে গণধর্ষণ করে খুন, বাড়ির কাছেই বাগানে মিলল নগ্ন দেহ]

জানা গিয়েছে, গত সোমবার মুকুন্দপুরের আমরি হাসপাতালে ভরতি হয়েছিল আড়াই বছরের ঐত্রী। হাসপাতালে ভরতি সময়ে তার ধুম জ্বর ছিল। এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ঐত্রীর চিকিৎসা চলছিল। পরিবারের লোকেদের জানিয়েছেন, বুধবার সকালে শিশুটিকে এক ইঞ্জেকশন দেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা। অভিযোগ, ইঞ্জেকশন দেওয়ার পর দ্রুত শারীরিক অবস্থায় অবনতি হয়। শুরু হয় খিঁচুনি। কিন্তু, অক্সিজেন দেওয়া তো দুরের কথা, হাসপাতালে একটি অক্সিজেন মাস্ক পর্যন্ত ছিল না। এমনকী, চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় অন্য যন্ত্রপাতিও খারাপ ছিল। শেষপর্যন্ত সকাল আটটা নাগাদ মায়ের চোখের সামনেই মারা যায় আড়াই বছরের ঐত্রী। এরপরই হাসপাতালে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন মৃতের পরিবারের লোকেরা। বিক্ষোভ চলাকালীন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন শিশুটির মা। হাসপাতালের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের হয়েছে।

[পর্যটনে নয়া দিশা, দিঘা-গঙ্গাসাগরে এবার সি-প্লেন]

যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে আমরি কর্তৃপক্ষ। তাঁদের দাবি, অভ্যন্তরীণ তদন্তে গাফিলতির কোনও প্রমাণ মেলেনি। তাই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে শিশুটির দেহের ময়নাতদন্ত করা হোক। আবার হাসপাতালের এক শিশুরোগ বিশেষজ্ঞদের সাফাই, গত এক সপ্তাহ ধরেই বমি নিয়ন্ত্রণের জন্য ইঞ্চেকশন দেওয়া হচ্ছিল শিশুটিকে। তাতে কোনও সমস্যা হয়নি। কিন্তু, বুধবার সকালে আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয় সে। তারজেরেই মৃত্যু। তবে আমরিতেই নয়, বুধবার সকালে রোগী মৃত্যুর ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় উডসল্যান্ডস ও অ্যাপেলো হাসপাতালেও। দুটি ক্ষেত্রেই চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন পরিবারের লোকেরা। উডসল্যান্ডসে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগে মৃতদেহ নিয়ে বর্ধমান রোড অবরোধও করা হয়।

[চোখে IPS হওয়ার স্বপ্ন, বিয়ে রুখতে বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে থানায় গেল নাবালিকা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement