BREAKING NEWS

২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অবশেষে জামিন পেলেন মদন মিত্র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 9, 2016 5:27 pm|    Updated: September 9, 2016 6:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে জামিন পেলেন মদন মিত্র৷ প্রভাবশালী তকমার জেরে এর আগে বারবার নাকচ হয়েছিল তাঁর জামিন৷ তবে শেষমেশ  গ্রেফতারের ২২ মাস পরে ৩০ লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে মঞ্জুর হল তাঁর জামিন৷

প্রায় ৬৩৪ দিন আগে সারদা-কাণ্ডে গ্রেফতার হয়েছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী৷ যদিও তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ এখনও প্রমাণিত হয়নি৷ সারদা-কাণ্ডের রেশ জনমানস থেকে প্রায় মুছে গেলেও, একা মদন মিত্রই রেহাই পাচ্ছিলেন না সিবিআইয়ের রক্তচক্ষু থেকে৷ তদন্তের স্বার্থেই তাঁর জামিনের বিরোধিতা করা হয়েছে সিবিআইয়ের তরফে৷ সিবিআই কৌঁসুলির বরাবরই জোরাল দাবি ছিল, প্রভাবশালী মদন মিত্র জামিন পেলে সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারেন৷ ফলে প্রভাবিত হতে পারে তদন্তের গতিপ্রকৃতি৷ যদিও তিনি নিজে বারবার বলে এসেছেন, তিনি ‘অচল পয়সা’৷ কিন্তু সিবিআই তাতে কর্ণপাত করেনি৷ তবে এর মধ্যেই তাঁর মন্ত্রিত্ব গিয়েছে৷ বিধানসভা নির্বাচনেও পরাজিত হয়েছেন তিনি৷বস্তুত দ্বিতীয় দফায় বিপুল জনাদেশ নিয়ে মমতা সরকার ক্ষমতায় ফিরলেও, মদন মিত্রর সেখানে কোনও ভূমিকা ছিল না৷ বরং বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয় তাঁর কাছে শাপে বর হয়েছিল৷ কেননা প্রভাবশালী হলে তিনি জেল হেফাজতে থেকেও নির্বাচন জিততে পারতেন, কিন্তু বাস্তবে তা  সম্ভব হয়নি৷ এদিকে সারদা-তদন্তেরও যে বিশেষ অগ্রগতি হচ্ছে এমনটাও মনে হয়নি আদালতের৷ ফলে মদন মিত্রকে জামিন না দেওয়ার কোনও যৌক্তিকতা আর খুঁজে পাওয়া গেল না বলেই মনে করা হচ্ছে৷ যদিও শেষ মুহূর্ত  পর্যন্ত তাঁর জামিন রোখার  চেষ্টা করেছিল সিবিআই৷ মন্ত্রিত্ব বা বিধায়ক পদ খোয়ালেও, ‘মরা হাতি লাখ টাকা’ প্রবাদকে সামনে এনে মদন মিত্রকে প্রভাবশালী প্রমাণের মরিয়া চেষ্টা ছিল সিবিআইয়ের৷ কিন্তু প্রভাবশালী হিসেবে তাঁকে শেষমেশ আর গণ্য করল না আদালত৷ শুক্রবার আলিপুর আদালতে মঞ্জুর হল তাঁর জামিন৷

ব্যক্তিগত  ৩০ লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে তাঁকে জামিন দেওয়া হল৷ এছাড়া সপ্তাহে একদিন করে তাঁকে সিবিআইয়ের সামনে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ তাঁর পাসপোর্টও জমা রাখা হয়েছে৷ আপাতত তিনি কলকাতার বাইরে আদালতের অনুমতি ছাড়া যেতে পারবেন না৷ স্বভাবতই এমন খবরে খুশির হাওয়া মদন মিত্রর পরিবারে৷ আত্মীয়-প্রতিবেশীরা থেকে শুরু করে অনুরাগীরা ইতিমধ্যেই ভিড় জমাতে শুরু করেছেম প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রীর বাড়ির সামনে৷ এই জামিন তাঁর কাছে তো বটেই, সামগ্রিকভাবে তৃণমূল ও মমতা সরকারের কাছেও যে অনেকটাই শাপমুক্তির মতো, এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের৷

দলের তরফেও তাঁর এই জামিনকে স্বাগত জানানো হয়েছে৷ তাঁকে অভিনন্দন জানিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “দল বরাবর তাঁর পাশে ছিল, এখনও আছে৷”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement