BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শোভনের ‘ঘর ওয়াপসি’ কি সময়ের অপেক্ষা? নবান্নে বৈশাখীর কাছে কাননের খোঁজ মমতার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 12, 2020 9:37 pm|    Updated: March 12, 2020 9:37 pm

An Images

দীপঙ্কর মণ্ডল: মিল্লি আল আমিন কলেজের অভ্যন্তরীণ সমস্যার খবর পৌঁছেছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। সংখ্যালঘু কলেজটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়(Baishakhi Banerjee) মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার সময় চেয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার তাঁকে নবান্নে ডেকে পাঠান মুখ্যমন্ত্রী। কলেজের সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে তাঁদের কথা হয়। দীর্ঘ আলোচনায় কলকাতার প্রাক্তন মেয়র তথা তৃণমূলের প্রাক্তন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গও উঠে আসে। পুরভোটের আগে নবান্নে এদিনের বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

খাতায় কলমে গেরুয়া শিবিরে থাকলেও কয়েক মাস আগে মুখ্যমন্ত্রীর (Mamata Banerjee) কালীঘাটের বাড়িতে গিয়ে ভাইফোঁটা নিয়েছিলেন শোভন। তারপর ফের কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের অনুষ্ঠানে দেখা হয়েছিল। দুই জায়গাতেই ছিলেন বৈশাখী। মাঝে বেশ কয়েকবার তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে মিল্লি আল আমিনের ভারপ্রাপ্ত অধক্ষ্যার। কিন্তু জট কাটেনি। পরিচালন সমিতির একটি গোষ্ঠী বৈশাখীর সঙ্গে আরও দূরত্ব বাড়িয়েছে। কিছুদিন আগে বিকাশ ভবনে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও তা ভেস্তে যায়। বৈশাখীকে দেখেই পরিচালন সমিতির লোকজন চলে যান। এদিন কলেজ নিয়ে কথার মাঝেই শোভন প্রসঙ্গ উঠে আসে। কানন কেমন আছেন তা জিজ্ঞেস করেন মুখ্যমন্ত্রী। কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।সম্প্রতি বিজেপির একটি অংশ কলকাতা পুরভোটে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে (Sovan Chatterjee) মেয়র হিসাবে দেখতে চান বলে জানিয়েছেন। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা শোভনের পক্ষে সওয়াল করেছেন। তারপরেই নবান্নে এদিনের বৈঠক।

[আরও পড়ুন: ‘পরিপক্ক রাজনীতিবিদকে জোর করে কাজ করানো যায় না’, শোভনকে খোঁচা দিলীপের]

মুখ্যমন্ত্রীর ঘর থেকে বেরোনোর পর বৈশাখীর শরীরি ভাষা ছিল ইতিবাচক। কলেজের সমস্যা প্রসঙ্গে বৈশাখী বলেন, “পরিচালন সমিতির কয়েকজন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সম্প্রতি দেখা করেছিলেন বলে শুনেছি। আমি মুখ্যমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চেয়েছিলাম। উনি আজ আমায় ডেকে পাঠান। কলেজ নিয়ে কথা হয়েছে।” শোভন প্রসঙ্গে কি কোনও কথা হয়েছে? এই প্রশ্নে বৈশাখী বলেন, “হ্যাঁ। উনি কেমন আছেন তা জানতে চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।” প্রসঙ্গত, অক্টোবরের শেষে ভাই ফোঁটায় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে শেষবার কথা হয়েছিল বৈশাখীর। নভেম্বরে চলচ্চিত্র উৎসবের অনুষ্ঠানে দেখা হলেও তাঁদের কথা হয়নি। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কী সাম্প্রতিক রাজনীতি নিয়ে কথা হয়েছে? হাসিমুখে অধ্যাপক বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংক্ষিপ্ত জবাব, “আজকের বৈঠকে আমি খুশি।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement