১৭ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

শাহর সভা নিয়ে জটিলতা অব্যাহত, পুলিশি ছাড়পত্র না পেলে আদালতে যাওয়ার ভাবনা বিজেপির

Published by: Sulaya Singha |    Posted: February 22, 2020 8:29 pm|    Updated: February 22, 2020 8:29 pm

An Images

ফাইল ফটো

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: ১ মার্চ শহিদ মিনার ময়দানে অমিত শাহর (Amit Shah) সভার অনুমতি পুলিশ যদি একান্তই না দেয় তাহলে আদালতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বিজেপি। আদালতে গেলে সভা করতে দেওয়ার স্বপক্ষে তিনটি যুক্তিকে তুলে ধরবে তারা। শনিবার এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন রাজ্য বিজেপির অন্যতম সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু।

শাহর সভার পুলিশি অনুমতি না মিললে আদালতে গেলে তিনটি যুক্তিকে তুলে ধরবে গেরুয়া শিবির। প্রথমত, ২০১৪ সালের ২৫ মার্চ শহিদ মিনার ময়দানে সভা করেছিলেন রাহুল গান্ধী। তখনও পরীক্ষার মরশুম ছিল। সেই বছর ২৭ মার্চ শেষ হয়েছিল উচ্চ মাধ্যমিক। বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, তখন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীনই কংগ্রেসের সভা হয়েছিল। আর ১ মার্চ অমিত শাহর সভার দিন কোনও পরীক্ষা নেই। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাও পরে শুরু হচ্ছে। দ্বিতীয়ত, প্রতি বছরই পরীক্ষার মরশুমের আগে রাজ্য সরকার একটা নোটিফিকেশন জারি করে। সেখানে লেখা থাকে, পরীক্ষার মরশুমে ‘রেসিডেন্সিয়াল’ এলাকায় মাইক বাজানো যাবে না। এক্ষেত্রে বিজেপি নেতাদের দাবি, শহিদ মিনার ময়দান ‘নন রেসিডেন্সিয়াল’ এলাকা। এছাড়া রাজ্য বিজেপি তৃতীয় যে যুক্তি খাড়া করছে তা হল, পরীক্ষার সময় মাইক বিধি নিয়ে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের একটি নির্দেশিকা।

[আরও পড়ুন: মাতৃস্পর্শেই খুলল চোখ, পোলবা দুর্ঘটনার সপ্তাহখানেক পর ‘মা’ ডাকল দিব্যাংশু]

দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদে নির্দেশিকায় রয়েছে, পরীক্ষার তিনদিন আগে মাইক বাজানো যাবে না। এক্ষেত্রে বিজেপি নেতাদের দাবি, ২৭ ফেব্রুয়ারি মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হয়ে যাচ্ছে। আর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ১২ মার্চ। তাহলে ১ মার্চ সভার ক্ষেত্রে কোনও অসুবিধা হচ্ছে না। কারণ, তার ১১দিন পর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। তাহলে সভা করার ক্ষেত্রে কোনও বাধা থাকছে না। এই তিনটি যুক্তিকে খাড়া করেই হাই কোর্টে মামলা দায়ের করবে বিজেপি। তবে সবটাই নির্ভর করছে কলকাতা পুলিশের অনুমতি দেওয়া না দেওয়ার উপর।

শহিদ মিনারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সভার অনুমতি ইতিমধ্যে দিয়েছে সেনা। বিজেপি সূত্রে খবর, ২৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধের মধ্যেই কলকাতায় চলে আসার কথা রয়েছে অমিত শাহর। রাতেই দলের রাজ্য নেতাদের সঙ্গে সাংগঠনিক বৈঠক করারও কথা রয়েছে। সেই মতো প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছে বঙ্গ বিজেপি। এদিকে, পরীক্ষার সময় মাইকে নিষেধাজ্ঞার জেরে এখনও সভার পুলিশি ছাড়পত্র মেলেনি। গত বৃহস্পতিবারই রাজ্য বিজেপির তরফে সভার অনুমতি চেয়ে লালবাজারে আবেদন করা হয়েছে। সোমবার পর্যন্ত পুলিশ কী বলে তা দেখেই আদালতে যাওয়ার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য বিজেপি। কারণ, কলকাতায় শাহর সভা হলে তার কিছুটা আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। সিএএ-র (CAA) সমর্থনে কলকাতায় অমিত শাহর সভায় রেকর্ড জমায়েত করতে চায় বঙ্গ বিজেপি। হাওড়া, কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা ও নদিয়া জেলা থেকেই মূলত জমায়েত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: কাকার হাত ধরে প্রেমিকের সঙ্গে আলাপ, জানুন কৃষ্ণা বসুর ব্যক্তিজীবনের কিছু কথা]

রবিবার কলকাতাকে কার্যত অচল করে দিতে চায় গেরুয়া শিবির। রেকর্ড জমায়েতের বিষয় রয়েছে। সেজন্য প্রতিটি এলাকায় প্রচার চাই। এছাড়া স্বেচ্ছাসেবক মিটিং করা, মাঠে মঞ্চ তৈরি, নিরাপত্তার বিষয়টিও রয়েছে। ফলে সমস্ত প্রস্তুতি নিতে গেলে ১ মার্চের আগে হাতে অন্তত দিন পাঁচেক সময় থাকতে হবে। তাই সোমবার পর্যন্ত পুলিশি ছাড়পত্রের জন্য অপেক্ষা করবে বিজেপি নেতৃত্ব।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement