BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সরকারি প্রকল্পের কাজে তদ্বির, সোমবার নবান্নে মন্ত্রী-বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 2, 2019 11:39 am|    Updated: June 2, 2019 11:39 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: দলীয় বৈঠকে ভোট পর্যালোচনায় নেতা-কর্মীদের বার্তা। আত্মবিশ্বাস তৈরি করে নতুন করে লড়াইয়ের নির্দেশ। দলের নেত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেই এবার প্রশাসকের ভূমিকায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে বৈঠকে ডাকলেন মন্ত্রী ও দলীয় বিধায়কদের। ভোটপর্বে দীর্ঘ প্রায় চার মাস সরকারি কাজ বন্ধ ছিল। কোনও প্রকল্প শুরু করতে চাইলেও তা সম্ভব ছিল না। ফলে সরকারের নিরবচ্ছিন্ন কাজে ছেদ পড়ছিল। ভোট পরবর্তী এই অবস্থায় কোথায় কোন কাজ আটকে, তারই বিস্তারিত পর্যালোচনায় এই বৈঠক বলে মনে করা হচ্ছে। সোমবার নবান্ন সভাঘরে এই বৈঠক হওয়ার কথা। মুখ্যমন্ত্রীর পৌরহিত্যে বিধায়ক ও মন্ত্রীদের সঙ্গে এই বৈঠককে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে প্রশাসনিক মহল।

লোকসভা ভোটে আশানুরূপ ফল হয়নি। সংগঠনে আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে যেমন দলে বার্তা দিয়েছেন, তেমনই সরকারে ও প্রশাসনে আরও গতি আনতে চান মমতা। আগামী ১০ জুন মুখ্যমন্ত্রী বৈঠকে বসবেন প্রশাসনের কর্তাদের নিয়ে। থাকবেন বিভিন্ন দপ্তরের সচিবরা। পাশাপাশি জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদেরও সেই বৈঠকে ডাকা হয়েছে। শুক্রবারই দলের কোর কমিটির বৈঠকে মমতা বলেছেন, ভোটের ফলের বিপর্যয় সাময়িক। দলকে তিনি ঘুরে দাঁড় করাবেনই। দলকে ঘুরে দাঁড় করানোর ক্ষেত্রে উন্নয়নই যে প্রধান হাতিয়ার, তা নিয়ে কোনও সংশয় নেই। মুখ্যমন্ত্রী যে উন্নয়নের কাজ অবিলম্বে আবার শুরু করবেন, এই বৈঠক ডাকা তারই ইঙ্গিত। রাজ্যজুড়ে একাধিক প্রকল্প নিয়েছিলেন মমতা। মনে করা হয়েছিল লোকসভা ভোটে তার ফসল অনায়াসে ঘরে তুলতে পারবে তৃণমূল। কিন্তু বাস্তব বলছে অন্য কথা। নানা জায়গায় সরকারি কাজের সুবিধা পৌঁছলেও ভোটে তার প্রতিফলন হয়নি।

কোথায় খামতি রয়ে গেল, মন্ত্রী-বিধায়কদের কাছ থেকে সেই কথাই শুনবেন মুখ্যমন্ত্রী। বিধায়কদের সেই কাজে কীভাবে আরও বেশি করে যুক্ত করা যায় তা নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হওয়ার সম্ভাবনা। উন্নয়নের কাজের সঙ্গে কীভাবে জনসংযোগ বাড়াতে হবে, সেই কৌশল রচনা এই বৈঠকে প্রধান লক্ষ্য। লোকসভা ভোটের ফলে দেখা গিয়েছে ১২৮টি বিধানসভা কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি। এরমধ্যে বহু কেন্দ্র রয়েছে, যেখানে বিধায়ক তৃণমূলের। উন্নয়নের এত কাজ করার পরেও কেন গতবারের জেতা বিধানসভা আসনগুলিতে লোকসভা ভোটে খারাপ ফল হল, সেই ময়নাতদন্তের কাজ অনেকখানি এগিয়েছে। এক্ষেত্রে উন্নয়নমূলক কাজগুলির প্রচার জনগণের মধ্যে বিধায়করা নিয়ে যেতে ব্যর্থ হয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে। এ বিষয়ে কী করা হবে, মুখ্যমন্ত্রী সেই বার্তাও বৈঠকে দিতে পারেন। তার পর ১০ জুন প্রশাসনিক কর্তাদের নিয়ে বসবেন নবান্নে। দুটি বৈঠকই হবে
নবান্ন সভাঘরে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement