BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

নাছোড় বৃষ্টি চলবে রবিবারও, তবে শক্তি হারাবে নিম্নচাপ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 9, 2017 3:08 pm|    Updated: September 20, 2019 2:35 pm

An Images

রিঙ্কি দাস ভট্টাচার্য: বোঝা দায় মাসটা অগ্রাহায়ণ নাকি শ্রাবণ! শুকনো বাতাস নয়। ভোরে গায়ে চাদর উঠেছিল স্যাঁতস্যাঁতে ভিজে হাওয়ায়। ঝলমলে নীল আকাশের বদলে শুক্রবার সকাল থেকেই কালো আকাশে মুখ ঢাকে কলকাতা ও আশপাশের এলাকার। শুক্রবার রাত থেকেই শুরু হয় বৃষ্টি। বেলার সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে বৃষ্টির দাপট। যার ফলে শনিবার দিনভর রঙিন ছাতায় মুখ ঢেকেছে শহরের রাজপথ। বৃষ্টির জেরে পথে বেরিয়ে নাজেহাল হতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে।

[বাগুইআটিতে বধূর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, পণের দাবিতে খুনের অভিযোগ]

এদিন বিকেল পর্যন্ত আলিপুরে বৃষ্টি হয়েছে ৮.৯ মিলিমিটার। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, রবিবারই গভীর নিম্নচাপটি উত্তর-উত্তর পূর্ব দিকে পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ উপকূলে সরে আসবে। এবং উপকূলে পড়লেই এটি ক্রমশ শক্তি হারাতে শুরু করবে। তবে কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বেশি বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকছে দুই ২৪ পরগনা এবং নদিয়ায়। সোমবার থেকে পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তরের উপ-মহানির্দেশক সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন দিনভর মুখভার ছিল আকাশের। ঝুপঝুপিয়ে বৃষ্টিতে উধাও হিমেল হাওয়া। স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি উপরে উঠে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা হয় ১৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবার সূর্যের মুখ না দেখায়ে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পারদ নেমে আসে ২১.৭ ডিগ্রিতে। যা  স্বাভাবিকের ছয় ডিগ্রি কম!

[মেয়েকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা, জামাইকে ধরে প্রকাশ্যে বেদম মার শাশুড়ির]

শেষ অগ্রাহায়ণে শ্রাবণ দর্শনের পিছনে ‘ভিলেন’ সেই দক্ষিণ-পূর্ব সাগরে তৈরি নিম্নচাপ। এদিন যার অবস্থান ছিল দিঘা থেকে ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে। যার প্রভাবে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলায় বৃষ্টি কম-বেশি বৃষ্টি হয়েছে। উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে রবিবারও। পাশাপাশি উপকূলে ৪০-৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া চলবে। ফলে মৎস্যজীবীদের গভীর সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

সব মিলিয়ে অগ্রাহায়ণের অকাল বৃষ্টির কোপে আপাতত বিশ্রামে শীত। নিম্নচাপ কাটলেই যে শীতের আমেজ ফিরে আসবে, এমন কোনও গ্যারান্টি দিতে পারছে না আলিপুর হাওয়া অফিস। কারণ তাদের পর্যবক্ষেণ, নিম্নচাপের প্রভাব কমলেও বাতাসে জলীয় বাষ্পের আধিক্য থেকে যাবে। পাশাপাশি দোসর হবে নতুন পশ্চিমি ঝঞ্ঝা। যার প্রভাবে উত্তর ভারতে ফিকে হবে উত্তুরে হাওয়া। বাড়বে তাপমাত্রা। তাই আগামী কয়েকদিন কলকাতার পারদ ১৮-১৯ ডিগ্রির আশপাশে থাকবে। সবমিলিয়ে শীতের আমেজ মিলতে পৌষ মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

[দুই নাবালিকাকে পর্ন ভিডিও দেখানোয় যুবককে নগ্ন করে পেটাল জনতা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement