BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘দিদি, বাংলার জনতা আপনার ইচ্ছা পূরণ করবে!’, মমতার ফোনালাপ নিয়ে কটাক্ষ শাহের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 9, 2020 1:17 pm|    Updated: June 9, 2020 1:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘নিজে পারছেন না আর বিজেপিকে বলছেন সামলাতে’। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) এই ভাষাতেই কটাক্ষ করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। এদিন পশ্চিমবঙ্গ জনসম্পর্ক ভারচুয়াল জনসভাতে মমতারই একটি পুরনো মন্তব্যকে হাতিয়ার করে তোপ দাগেন শাহ। বেশ কয়েকদিন আগে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘আমি অমিত শাহকে বলেছিলাম, আপনার যদি মনে হয় আমরা করোনা পরিস্থিতি সামলাতে পারছি না তাহলে আপনারাই সামলান। আমার কোনও আপত্তি নেই। তখন তিনি বলেছিলেন, তা কী করে সম্ভব! নির্বাচিত সরকারকে কীভাবে ভাঙতে পারি?’। মঙ্গলবার সেই মন্তব্যের পালটা শাহ বলেছেন, ‘মমতা দিদি, নিজে সামলাতে পারছেন না, আর বলছেন বিজেপি সামলাক। চিন্তা করবেন না, বাংলার মানুষ নির্বাচনে আপনার এই ইচ্ছা পূরণ করবে।’

এদিন একাধিক কেন্দ্রীয় প্রকল্প নিয়ে বাংলার সরকারকে তুলোধোনা করেন অমিত শাহ। কিষাণ যোজনা থেকে আয়ুষ্মান ভারত, সবকিছুরই বাংলায় ‘নো এন্ট্রি’ কেন, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছেন শাহ। বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী গরিব চাষিদের অ্যাকাউন্টে ৬ হাজার টাকা করে দিতে চান। তাতে আপনার আপত্তি কেন? কেন আপনি বাধা দিচ্ছেন? রাজনীতি করার অনেক সুযোগ পড়ে রয়েছে। কিন্তু চাষিদের বঞ্চিত করবেন না। ওঁরা বেচারা করোনা, আমফানের জোড়া মার খেয়েছে। ওঁদের টাকাটা নিতে দিন। আপনি শনিবার চাষিদের নামের তালিকা পাঠান, আমি কথা দিচ্ছি সরকার সোমবারের মধ্যে তাঁদের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দেবে।’ মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প নিয়েও রাজনীতি করার অভিযোগ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ‘আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা কেন বাংলার মানুষ পাবে না, মুখ্যমন্ত্রী জবাব দিন। আপনি কেন কেন্দ্রীয় প্রকল্পকে বাংলায় চালু করতে বাধা দিচ্ছেন। আমাদের সরকার ক্ষমতায় এলে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী শপথ নেওয়ার এক মিনিট পরই প্রথম কাজ হিসাবে এই প্রকল্প চালু করবে রাজ্যের মানুষের জন্য।’

[আরও পড়ুন: ‘ভোটবাক্সে বাংলার মানুষ আপনাকে রাজনৈতিক শরণার্থী বানাবে’, মমতাকে তোপ শাহের]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একদিন ক্ষোভ প্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য করেছিলেন, “আমাকে রাজনৈতিকভাবে যা ইচ্ছে করুন। কিন্তু আমায় ডিস্টার্ব করতে গিয়ে কেন বাংলার ক্ষতি করে দিচ্ছেন, মানুষের ক্ষতি করছেন জানি না। এখন মানুষের দুর্ভোগ সামলাব, রাজ্যের দুর্যোগ সামলাব, নাকি চাপিয়ে দেওয়া রাজনীতি সামলাব? এত লোককে কোয়ারেন্টাইন করার জায়গা কোথায় পাব? কেন্দ্র ব্যবস্থা নিক। প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলব এখন রাজনীতি নয়। সর্বনাশা এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইব। আমাদের সহযোগিতা করুন। আমি একদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে বলেছিলাম যদি মনে করেন আমরা পারছি না তবে আপনারা বিষয়টা দেখে নিন আপনারাই করুন। উনি অবশ্য ভাল কথাই বলেছিলেন, ‘চুনে হুয়ে সরকার কো ক্যায়সে তোড় সাকতে হ্যায়?’

[আরও পড়ুন: ‘প্রধানমন্ত্রী ১০০০ কোটি দিলেও একবার তাঁকে ধন্যবাদ জানায়নি’, রাজ্যকে তোপ দিলীপের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement