১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

KMC কর্মীর ভুয়ো পরিচয় দিয়ে হুমকি ব্যবসায়ীদের, অভিযোগ পেয়েই গ্রেপ্তার করল পুলিশ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 23, 2021 10:13 am|    Updated: July 23, 2021 10:17 am

Bhawanipore Police arrests man who introduced himself as KMC employee | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: এবার কলকাতা পুরসভার (KMC) কর্মীর পরিচয় দিয়ে হুমকি, প্রতারণার চেষ্টার অভিযোগ। ভবানীপুর (Bhawanipore) থানার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার ভুয়ো পুরকর্মী। পুলিশ সূত্রে খবর, ওই ব্যক্তি নিজেকে স্বপন সমাদ্দার নামে পরিচয় দেয়। তবে তিনি কোন দপ্তরের কর্মী, তা নিয়ে একেকজনের কাছে একেকরকম তথ্য দিয়েছিলেন তিনি। ভবানীপুর এলাকার যদুবাবুর বাজারে গিয়ে ব্যবসায়ীদের লাইসেন্স (Lisence) পরীক্ষা করতে চান তিনি, কাউকে আবার লাইসেন্স বাতিলেরও হুমকি দেন বলে অভিযোগ। কিন্তু তাঁর গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় ব্যবসায়ীরাই পুলিশে খবর দেন। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, গত কয়েকদিন ধরেই দক্ষিণ কলকাতার ভবানীপুরের যদুবাবুর বাজার এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিলেন স্বপন সমাদ্দার নামে ওই ব্যক্তি। কাউকে তিনি পরিচয় দেন পুরসভার লাইসেন্স দপ্তরের কর্মী হিসেবে। আবার কাউকে বলেন, তিনি ফুড ইন্সপেক্টর (Food inspector)। যদুবাবুর বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, বৃহস্পতিবার এই বাজারে গিয়ে দোকানদারদের লাইসেন্স আছে কি না, সেসব প্রশ্ন করতে শুরু করেন। আবার কয়েকজন ব্যবসায়ীকে লাইসেন্স বাতিল করে দেওয়ার হুমকিও দেন। পাশাপাশি তাঁকে সামান্য টাকা দিলে লাইসেন্স পুনর্নবীকরণ হয়ে যাবে বলেও প্রলোভন দেখান বলে অভিযোগ ব্যবসায়ীদের একাংশের। অর্থাৎ একেকজনের কাছে একেকরকমভাবে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছিলেন স্বপনবাবু।

[আরও পড়ুন: Corona Vaccine: ৬২% নাগরিকের টিকাদান সম্পূর্ণ, রেকর্ড হারে দেশে প্রথম কলকাতা]

আর এসবের জেরেই ব্যবসায়ীদের মনে সন্দেহ দানা বাঁধতে থাকে। বৃহস্পতিবার স্বপন সমাদ্দার বাজারে গেলে ব্যবসায়ীরা তাঁকে চ্যালেঞ্জ করেন। তা দেখে নিজেই ঘাবড়ে যান স্বপন। এরপর ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে জালিয়াতির অভিযোগ তুলে ভবানীপুর থানায় খবর দেওয়া হয়। বাজারেই আটকে রাখা হয় স্বপন সমাদ্দারকে। পুলিশ সেখানে গিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ সূত্রে খবর, তার কাছ থেকে কলকাতা পুরসভার ভুয়ো স্ট্যাম্প ও কিছু নথি উদ্ধার হয়েছে। যদিও সে কারও কাছ থেকে টাকা আদায় করতে পারেনি বলে পুলিশকে জানিয়েছে। ধৃতকে আজ আদালতে পেশ করা হতে পারে।

[আরও পড়ুন: জন্ম থেকেই দু’চোখে ছানি, বিরল অস্ত্রোপচারে ২ মাসের শিশুর দৃষ্টিশক্তি ফেরাল Apollo]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে