BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ইডেনে বসেই অভিনব পদ্ধতিতে ক্রিকেট জুয়া, ধৃতদের জেরায় মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 25, 2019 9:09 pm|    Updated: November 25, 2019 9:09 pm

An Images

অর্ণব আইচ: ২৭ সেকেন্ডের ব্যবধান। তার মধ্যেই ইডেনে বসে ‘টেলিকাস্ট ল্যাগ’-এর মাধ্যমে ক্রিকেট বেটিং করে বাজিমাত করার চেষ্টা করছিল ভিনরাজ্যের যুবকরা। কোনও বল বা রান হতে না হতেই মোবাইলে হাত ও মাঝেমাঝেই ফিসফিস করে ফোনে কথা বলতে দেখে সন্দেহ হয় কয়েকজন দর্শকের। তাঁদের একজনের কাছ থেকেই খবর পান লালবাজারের গোয়েন্দারা। তারপর শনিবার খেলা চলাকালীনই তাঁরা হাতেনাতে ধরে ফেলেন ওই তিন যুবককে। তাদের জেরা করে হোটেল থেকে ধরা পড়ে আরও দু’জন। ধৃত পাঁচজনই মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানের বাসিন্দা।

[আরও পড়ুন: নাইট ক্লাবে মাদক পাচারের মাধ্যম এসকর্ট সুন্দরী, গোয়েন্দাদের জেরায় স্বীকারোক্তি কারবারির]

পুলিশ জানিয়েছে, ‘টেলিকাস্ট ল্যাগ’ বা এই ধরনের বেটিংয়ের পদ্ধতি নতুন। খেলা চলা থেকে টিভিতে লাইভ টেলিকাস্টের মধ্যে ২৭ সেকেন্ডের ব্যবধান থাকে। জুয়াড়িরা সেই সময়টিকেই কাজে লাগায়। ভারত ও বাংলাদেশের টেস্ট চলাকালীন তারা একটি বেটিং ওয়েবসাইটে লগ ইন করে। চোখের সামনে খেলা দেখে বোলিং বা রানের ফল সঙ্গে সঙ্গে জানিয়ে দেয় ওয়েবসাইটে।

[আরও পড়ুন: থমকে মাঝেরহাট ব্রিজের কাজ, ছাড়পত্রের দাবিতে রেলমন্ত্রীকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর]

২৭ সেকেন্ড পর টিভির টেলিকাস্টে সেই ফল মিলে যেত। তখন তাদের অনলাইন ওয়ালেটে জমা পড়ত টাকা। তিনজন ইডেন ও দু’জন হোটেলে বসে চালাচ্ছিল এই চক্র। রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশ থেকে আসার বিমান ভাড়া ও ভাল হোটেলে থাকার খরচ বাদ দিয়েও এই পদ্ধতিতে চালানো ক্রিকেট জুয়ায় প্রচুর টাকা রোজগার করত তারা। ধৃতদের জেরা করে এই বিষয়ে আরও তথ্য জানার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কলকাতা থেকে আগেও অনেক জুয়াড়ি গ্রেপ্তার হয়েছে। এ বছর আইপিএল এবং বিশ্বকাপের সময়ও একাধিক জায়গা বেটিং চক্রের সন্ধান পেয়েছিল কলকাতা পুলিশ। গ্রেপ্তারও হয়েছিল বেশ কয়েকজনকে। এবার টেস্ট ম্যাচ নিয়েও জমে উঠেছিল কলকাতার বেটিংয়ের বাজার। শনিবার সেই খবর পেয়ে বৃন্দাবন বসাক স্ট্রিটের একটি বাড়িতে হানা দেয় জোড়াবাগান থানার পুলিশ। সেখান থেকে চারজন ধরাও পড়ে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement