৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সারদা মামলা নিয়ে আর সময় নষ্ট করতে নারাজ সিবিআই। মামলার অন্যতম জড়িত সন্দেহে তদন্ত শুরু করা কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন কমিশনার রাজীব কুমারকে নিজেদের হেফাজতে আনতে এবার পরিকল্পনা কিছুটা বদল করা হল। সূত্রের খবর, নোটিসের ভিত্তিতে শনিবার দিনভর সিবিআই দপ্তরে তিনি হাজিরা না দেওয়ায়, তাঁকে আর দ্বিতীয়বার নোটিস পাঠানো হবে না। সোমবারই সরাসরি কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করা হবে।

[আরও পড়ুন: স্কুটির ক্যারিয়ারে অস্ত্র পাচার, তপসিয়া থেকে পুলিশের জালে এক যুবক]

সময় দেওয়া হয়েছে অনেক। সেই সময়ের সুযোগ নিয়ে বারবার সিবিআই জেরা এড়িয়ে বস্তুত তদন্তকারী আধিকারিকদের হয়রান করছেন কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল রাজীব কুমার। এমনই অভিযোগ শোনা যাচ্ছে সিবিআইয়ের অন্দরে। শনিবারও সেই একই কাজ করেছেন প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার। সকাল ১০টায় সিবিআই তাঁকে সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে নথিপত্র নিয়ে তলব করা হয়েছিল। তিনি তদন্তকারীদের প্রায় ৬,৭ ঘণ্টা অপেক্ষা করিয়ে হাজিরা দেননি। বদলে আদালতে গিয়ে ফের গ্রেপ্তারির এড়ানোর জন্য আইনি সুরক্ষার আবেদন করেছিলেন।
সূত্রের খবর, রাজীব কুমারের এই আচরণে এবার ক্ষোভ জমেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার অন্দরে। এরপরই সিবিআই আধিকারিকরা ঠিক করেন, আর দ্বিতীয়বার নোটিস পাঠিয়ে এই আইপিএস অফিসারকে ডাকা হবে না। কারণ, ফের নোটিস পাঠানোর অর্থ সময় নষ্ট করা বলেই তাঁরা মনে করছেন। তাই এবার সরাসরি সিবিআইও আইনি পথেই লড়াইয়ে নামতে চায়। সোমবারই রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে বলে সূত্রের খবর। সিবিআইয়ের নিজস্ব আইনজীবী জেওয়াই দস্তুরের সঙ্গে এনিয়ে একপ্রস্ত আলোচনাও হয়ে গিয়েছে। যদিও শনিবার বিকেল পর্যন্তও সিবিআইয়ের অন্দরে দ্বিতীয়বার নোটিস পাঠানোর প্রস্তুতি চলছিল। রবিবার দুপুরের মধ্যেই অবশ্য পরিকল্পনা বদলে গিয়েছে। আর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার এই নয়া পরিকল্পনায় রাজীব কুমার আরও বিপদে পড়তে পারেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[আরও পড়ুন: এবার পুজোয় নয়া চমক, চন্দ্রযান ওড়াবে শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাব]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং