×

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মমতার ধরনায় উপস্থিতির জের। রাজীব কুমারের পর আরও পাঁচ আইপিএসের বিরুদ্ধে রাজ্যকে কড়া পদক্ষেপ নিতে বলল কেন্দ্র। ওই পাঁচ জনের তালিকায় রয়েছেন রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র, কলকাতার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সুপ্রতীম সরকার, এডিজি আইন শৃঙ্খলা অনুজ শর্মা, বিধাননগর পুলিশ কমিশনার জ্ঞানবন্ত সিং এবং মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ আধিকারিক বিনীত কুমার। কেন্দ্রের অভিযোগ,  মুখ্যমন্ত্রীর ধরনা মঞ্চে হাজির ছিলেন এই পাঁচ আইপিএস আধিকারিক। সূত্রের খবর, রাজ্য ব্যবস্থা না নিলে এই পাঁচ আইপিএসের বিরুদ্ধে কেন্দ্র নিজেই কড়া পদক্ষেপের কথা ভাবছে। সেক্ষেত্রে তাঁদের চাকরি জীবনে পাওয়া সমস্ত পদক কেড়ে নেওয়া হতে পারে।

[সম্ভবত ১০ ফেব্রুয়ারি তলব রাজীব কুমারকে, জিজ্ঞাসাবাদের চূড়ান্ত প্রস্তুতি CBI-এর]

মুখ্যমন্ত্রীর ধরনা মঞ্চে উপস্থিত থাকার অপরাধে আগেই রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তাঁর বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গ, এবং সার্ভিস রুল ভাঙার অভিযোগ ছিল। কেন্দ্রের অভিযোগ, একজন পুলিশ কর্তা কখনই রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারেন না। পালটা হিসেবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দেন, কলকাতার পুলিশ কমিশনার ধরনায় শামিল হননি। বরং তিনি হাজির ছিলেন মুখ্যমন্ত্রীকে নিরাপত্তা দিতে।

[বাংলার হাল জরুরি অবস্থার চেয়েও খারাপ, তোপ শিবরাজের]

এবার রাজীব ছাড়াও রাজ্যের পাঁচ শীর্ষস্থানীয় আইপিএসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ এল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে। তবে কেন্দ্রের ধারণা, রাজ্য এদের বিরুদ্ধেও কোনও ব্যবস্থা নেবে না। আর, রাজ্য কোনও ব্যবস্থা নেবে না ধরে নিয়েই ওই পাঁচ জনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। এখনও পর্যন্ত যা খবর, ওই পাঁচ আইপিএস আধিকারিক চাকরি জীবনে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে যে যে পদক পেয়েছেন তা কেড়ে নেওয়া হবে। ওই পাঁচ জনের মধ্যে কয়েকজন রাষ্ট্রপতি পদকও পেয়েছেন। সেই পদকও কেড়ে নেওয়া হবে বলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে খবর। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও সংগঠনে কাজ করার জন্য ‘এমপ্যানেল’ থেকে তাঁদের নাম বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং