১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

গলব্লাডারে অস্ত্রোপচারে মৃত্যু পড়ুয়ার, চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ পরিবারের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 19, 2018 11:34 am|    Updated: May 19, 2018 11:34 am

Class 9 student dies in Kolkata hospital, family alleges negligence

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গলব্লাডার স্টোনের চিকিৎসায় করাতে এসে ক্লাস নাইনের এক ছাত্রীর মৃত্যু, আর তাতেই অশান্তি ছড়াল কলকাতার দক্ষিণ শহরতলির একটি বেসরকারি হাসপাতালে। মৃত রোগীর পরিবারের অভিযোগ, চিকিৎসক শুভায়ু বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভুল চিকিৎসার জন্যই মৃত্যু হয়েছে মেয়েটির। ইতিমধ্যেই ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে পূর্ব যাদবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে পরিবার। অভিযুক্ত চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে বিভাগীয় তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে ওই বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

[বন্ধুকে খুনের অভিযোগে শহরের বহুতল থেকে ধৃত গুয়াহাটির হোটেল ব্যবসায়ী]

গত দুমাস ধরে দক্ষিণ শহরতলির মুকুন্দপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে গলব্লাডারের স্টোনের চিকিৎসা করাচ্ছিল সোনারপুরের কামদাবাদ ভৌমিক পার্ক এলাকার নবম শ্রেণির পড়ুয়া অনিন্দিতা মন্ডল। চিকিৎসক শুভায়ু বন্দ্যোপাধ্যায়ের অধীনেই চলছিল তার চিকিৎসা। এরমধ্যে গত একমাস হাসপাতালের ভেন্টিলেশনে ছিল মেয়েটি। মৃতার পরিবার সূত্রে খবর, চিকিৎসক শুভায়ু বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরামর্শে গত ১৮ মার্চ ওই বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অনিন্দিতাকে। এরপর ১৯ মার্চ তাঁর গলব্লাডারে স্টোন অপারেশন হয়। পরিবারের অভিযোগ, অপারেশনের সময়ই চরম গাফিলতি করেন ওই অভিযুক্ত চিকিৎসক শুভায়ু বন্দ্যোপাধ্যায়। ৮টা স্টোন বের করার পাশাপাশি অপারেশনের সময় পিত্তথলির নালিতে ছিদ্র করে ফেলে সে। কিন্তু তা জানান হয়নি রোগীর বাড়ির লোকদের। পরিবারটি আরও জানিয়েছে, দুদিন পর ওই অভিযুক্ত চিকিৎসকই তাদের জানায় যে রোগীর সমস্ত শরীরে পিত্তরস ছড়িয়ে যাচ্ছে ফলে আরও দুটি অপারেশন করাতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ মতো আরও দুটি অপারেশন হলেও হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় অনিন্দিতার অবস্থা খারাপের দিকে যাচ্ছে। এরপর গত একমাস ধরে ওই হাসপাতালে ভেন্টিলেশনেই ছিল অনিন্দিতা মন্ডল। সমস্ত শরীরে ইনফেকশন ছড়িয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় ভেন্টিলেশনেই মৃত্যু হয় তাঁর।

এরপরেই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন রোগীর বাড়ির লোকেরা। পূর্ব যাদবপুর থানায় ওই চিকিৎসক শুভায়ু বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিয়োগ দায়ের করা হয়। মৃতার বাবা রাজেশ মণ্ডলের অভিযোগ, পরের দুটি অপারেশন তাদের না জানিয়েই করা হয়েছিল। মৃতার মা রুমা মণ্ডল জানান, তাঁদের মেয়ের সঙ্গে যা হয়েছে তা যাতে অন্য কারও সঙ্গে না ঘটে এবং ওই চিকিৎসকের কাছে যাতে কেউ চিকিৎসা করাতে না আসে তার ব্যবস্থা করা হবে। তবে এই প্রথম নয়, জানা গিয়েছে, এর আগেও একাধিকবার চিকিৎসক শুভায়ু বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে। এমনকি বর্তমানে এই সংক্রান্ত একটি মামলার তদন্ত করছে মেডিক্যাল কাউন্সিল। তবে এতকিছুর পরেও নির্বিকার থেকে গিয়েছেন অভিযুক্ত চিকিৎসক।

[বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াচ্ছে তৃণমূলের কর্মীরা, দাবি দিলীপের]

মুকুন্দপুর এলাকার ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অভিযুক্ত চিকিৎসকের সঙ্গে কথা সমস্ত বিষয়ে জানা হবে এবং বিভাগীয় তদন্ত শুরু করা হবে। বর্তমানে চিকিৎসা বিজ্ঞানের যে অগ্রগতি ঘটেছে তাতে গলব্লাডার অপারেশেন নিতান্তই ক্ষুদ্র একটি চিকিৎসা। সেই চিকিৎসায় একজন রোগীর মৃত্যুকে ঘিরে নড়েচড়ে বসেছে চিকিৎসক মহল। যথারীতি স্তম্ভিত তাঁরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে