BREAKING NEWS

১৪ মাঘ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

এক ট্যাক্সিতে একাধিক নম্বর, ‘নকল’ অস্ত্র-সহ গ্রেপ্তার ৪

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 4, 2017 8:34 am|    Updated: August 4, 2017 8:55 am

Cops foil abduction bid in Kolkata, 4 held

অর্ণব আইচ: নকল আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে অপহরণের ছক। একই ট্যাক্সিতে একাধিক নম্বর। পুলিশি তৎপরতায় অপরাধের ছক বানচাল হল মধ্য কলকাতার রাসেল স্ট্রিটে। আটক হয়েছে ট্যাক্সি। গ্রেপ্তার করা হয়েছে চালক সহ-চারজনকে। অভিযুক্তরা মুম্বই থেকে অপারেশনে এসেছিল। ধৃতদের থেকে খেলনা বন্দুক ছাড়াও বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

[হাতে মদের বোতল নিয়ে খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে ২ যুবক, তারপর…]

বুধবার তখন রাত প্রায় সাড়ে দশটা। রাসেল স্ট্রিটে স্টেট ব্যাঙ্কের কাছে অভিজাত ক্লাবের পাশে একটি দাঁড়িয়ে থাকা ট্যাক্সি দেখে সন্দেহ হয়েছিল পুলিশের। দেখা যায় ট্যাক্সিতে দেখা যায় দুটি নম্বর। পিছনের দিকে লেখা ছিল WB -04 D-1682 এবং সামনের দিকে দরজার পাশে লেখা ছিল  WB -04 D-1592। বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের টহলদারি ভ্যান গাড়িটির কাছে যায়। গাড়িতে থাকা তিন ব্যক্তির অসংলগ্ন কথাবার্তায় পুলিশের সন্দেহ আরও দানা বাধে। পুলিশের জেরায় তারা ভেঙে পড়ে। তাদের লক্ষ ছিল কলকাতার নামী ধনী দুই শিল্পপতিকে অপহরণ এবং মোটা মুক্তিপণ আদায় করা।  অভিযুক্তদের থেকে একটি খেলনা বন্দুক পুলিশ আটক করে। বন্দুকটি বাইরে থেকে দেখতে অত্যাধুনিক মনে হলেও আসলে তা নকল। গাড়ির ডিকি থেকে উদ্ধার হয় দুটি ছুরি, একটি পলিমার টেপ, একটি বিছানার চাদর এবং একটি মানচিত্র। ধৃতদের থেকে পাওয়া মানচিত্রে রাসেল স্ট্রিট, শেক্সপিয়র সরণির বর্ণনা রয়েছে। পুলিশ বলছে এটা মুম্বই গ্যাং। এই বিষয়ে তদন্তের ব্যাপারে মুম্বই পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইছে কলকাতা পুলিশ।

[বিজেপি ‘ছায়ায়’ মুকুল? কী জবাব তৃণমূল সাংসদের]

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের ধারণা অপহরণের উদ্দেশে ওই চারজন জড়ো হয়েছিল। চারজনকে পরে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ধৃত ট্যাক্সিচালকের বাড়ি মহম্মদ আলি আজাদ। তার বাড়ি বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটে। আজাদের বন্ধু বাকি তিনজন। তিন অভিযুক্ত মুম্বই থেকে কলকাতায় এসেছিল। তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে পুলিশ মামলা করেছে। শুক্রবার ধৃতদের ব্যাঙ্কশাল কোর্টে পেশ করা হয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে