BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কোর্টের রায় শুনে ভুল স্বীকার করল সিপিএম

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 1, 2016 9:20 am|    Updated: September 1, 2016 9:20 am

An Images

দীপঙ্কর মণ্ডল: পাঁচ বছর আগে নেতাই গণহত্যার জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছিলেন তখনকার মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য৷ সিঙ্গুরে বেআইনি জমি অধিগ্রহণের এক দশক পরে বুধবার কার্যত নিজেদের ভুল স্বীকার করলেন সিপিএম রাজ্য কমিটির সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র৷

এদিন সুপ্রিম কোর্টের রায় ঘোষণার আগেই আলিমুদ্দিন থেকে বেরিয়ে যান বুদ্ধবাবু৷ পার্টির রাজ্য সম্পাদক বলেন, “সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এখন জমি ফেরত পাবেন কৃষকরা৷ জমি সংবেদনশীল বিষয়৷ কৃষকের মতামত গুরুত্বপূর্ণ৷ কৃষকের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে জমি নেওয়া যায় না৷ এটাই আমাদের মত৷”

সিপিএম অবশ্য ‘ভাঙে তবু মচকায় না’৷ আলিমুদ্দিনের সাংবাদিক বৈঠকে সূর্যকান্ত বলেন, “২০১১ সালে নতুন সরকার বিধানসভায় জমি ফেরতের বিল আনে৷ আমরা বলেছিলাম জমি ফেরত দেওয়া যেতে পারে৷ কিন্তু যেভাবে আইন আনা হচ্ছে তা সংবিধান সম্মত নয়৷ কীভাবে ফেরত দেওয়া যায় তার প্রস্তাব রেখেছিলাম৷ কিন্তু ইচ্ছুক-অনিচ্ছুকের মধ্যে বৈষম্য করা যায় না৷ সরকার মানেনি তাই আমরা ওয়াকআউট করেছিলাম৷” একইসঙ্গে তিনি মনে করেন শীর্ষ আদালতের রায় কার্যকর হলে সিঙ্গুরে জটিলতা বাড়বে৷ তাঁর কথায়, “সিঙ্গুরে নতুন জটিলতা সৃষ্টি হতে যাচ্ছে৷ প্রথমত, যাঁরা ক্ষতিপূরণ নিয়ে জমি দিয়েছিলেন তাঁদের জমি পাওয়ার অধিকার থাকবে কি থাকবে না? দ্বিতীয়ত, যে জমি ফেরত দেওয়া হবে সেই জমি চাষের উপযোগী কি না৷ টাটারা রিভিউ চাইবেন কি না জানি না৷ সরকারকে স্পষ্ট বলতে হবে কীভাবে কোর্টের রায় কার্যকর হবে৷”

বামফ্রন্টের শরিকরা সিঙ্গুরে জমি অধিগ্রহণের পদ্ধতি নিয়ে আগেই প্রশ্ন তুলেছিল৷ শরিকদের মতকে গ্রাহ্যই করেনি বড়দল সিপিএম৷ এদিন সূর্যকান্ত বলেন, “সিঙ্গুরের জমি নিয়ে যে রায় সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে তা খুব স্পষ্ট নয়৷ দুই বিচারপতির একজন মনে করেন অধিগ্রহণ বেআইনি৷ তা খারিজ করা উচিত৷ অন্যজন মনে করেন এটা বেআইনি নয়৷ দু’জনে একমত হয়ে বলেছেন যেহেতু ওই জমিতে কারখানা হচ্ছে না, তা ফেরত দেওয়া উচিত৷” একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, নতুন আইনে সমস্যা তৈরি হয়েছে৷ শিল্প গড়তে তো জমি অধিগ্রহণ করতে হবে৷ কৃষককে বুঝিয়ে নিতে হবে৷ তখন যা আইন ছিল সেই আইন অনুযায়ী সিংহভাগ মানুষ জমি স্বেচ্ছায় দিয়েছিলেন৷ রাজনৈতিক মহলের মতে সূর্যকান্ত মিশ্র এই বক্তব্যে নিজেদের ভুল ঘুরিয়ে স্বীকার করলেন৷ তাঁকে প্রশ্ন করা হয় আদালতের রায়ের পর কি তিনি সিঙ্গুরে গিয়ে ক্ষমা চাইবেন? উত্তরে সূর্যকান্ত বলেন, “ক্ষমা চাওয়ার ব্যাপার নেই৷”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement