BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

থানায় ফোন করলেই মিলবে ডাক্তার, করোনা মোকাবিলায় কলকাতাবাসীর জন্য নয়া উদ্যোগ

Published by: Paramita Paul |    Posted: August 13, 2020 5:02 pm|    Updated: August 13, 2020 11:10 pm

An Images

কৃষ্ণকুমার দাস: কোভিড যুদ্ধে রাজ্য সরকারের ডাকে সাড়া দিয়ে চিকিৎসক ঘাটতি মেটাতে এবার করোনায় (Corona Virus) সংক্রমিতদের চিকিৎসায় নেমে পড়লেন হাজার খানেক বেসরকারি ডাক্তার। এবার কলকাতার কোনও থানায় ফোন করলেই ওই ডাক্তারদের নম্বর পাওয়া যাবে এবং সঙ্গে সঙ্গে টেলিফোনেই অসুস্থকে পরামর্শ দেবেন তাঁরা। শুধু চিকিৎসা নয়, হাসপাতালগুলিতে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার প্রোটোকল ঠিকমতো মানা হচ্ছে কি না তাও স্বাস্থ্যদপ্তরের টিমের সঙ্গে গিয়ে দেখবেন ওই সংগঠনের চিকিৎসকরা। সরকারি চিকিৎসকদের সঙ্গে মৃদু উপসর্গ বা উপসর্গহীনদের সুস্থ করতে সেফ হোমেও ডিউটি করবেন তাঁরা।

ডাক্তারদের সর্ববৃহৎ সংগঠন আইএমএ’র রাজ্য শাখা থানা ও জোনভিত্তিক ডাক্তারদের তালিকা পাঠিয়ে দিয়েছে রাজ্য সরকারের কাছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কলকাতা পুরসভা (KMC) ও পুলিশ প্রবীণদের জন্য যে বিশেষ পরিষেবা চালু করেছে তারই অংশ হয়ে ২৪ ঘণ্টাই শহরে  চিকিৎসা পৌঁছে দেবেন আইএমএ’র ডাক্তাররা। চিকিৎসকদের অন্য একটি সংগঠন ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টরস ফোরামও রাজ্য সরকারের ডাকে সাড়া দিয়ে কোভিড প্রোটোকল টিমে কাজ করছে। আইএমএ’এর রাজ্য সম্পাদক ডাঃ শান্তনু সেন জানান, “কোভিড ম্যানেজমেন্ট প্রোটোকল টিমে এবং প্রবীণদের চিকিৎসায় ডাক্তাররা স্বেচ্ছাসেবী হিসাবে কাজ করবেন। প্রয়োজনে রোগীর বাড়িও যাবেন ডাক্তাররা।”

[আরও পড়ুন : টুইটারে কাতর আরজি, করোনা রোগীকে রক্ত দিতে ২ ঘণ্টার মধ্যে হাসপাতালে কলকাতা পুলিশকর্মী]

করোনা যুদ্ধে নেমে কার্যত যুদ্ধক্ষেত্রে হেরে যাওয়া ২০ জন ডাক্তারের মৃত্যুতে উদ্বিগ্ন রাজ্যের পাশে দাঁড়াল আইএমএ। করোনার লড়াইয়ে বেসরকারি ডাক্তারদের যোগ দিতে ইতিমধ্যে আহ্বান করেছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীও। কারণ, সংক্রমণ বৃদ্ধিতে পরিস্থিতি সামাল দিতে দ্রুত কোভিড হাসপাতাল তৈরি করলেও বহু ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় চিকিৎসকের জোগান দেওয়া কঠিন হয়ে পড়ছে। সেই সংকট মেটাতে আইএমএ এগিয়ে আসায় জেলায়-জেলায় কোভিড চিকিৎসায় সরকারি পরিকাঠামোয় ডাক্তারের ঘাটতি পূরণ হবে বলে স্বীকার করেছেন সরকারি স্বাস্থ্যকর্তারা। বুধবার পর্যন্ত রাজ্যে ৮৪টি কোভিড চিকিৎসাকেন্দ্র চালু হলেও এর মধ্যে ২৯টি সরকারি হাসপাতালে সিংহভাগ রোগীর চিকিৎসা বিনা খরচেই হচ্ছে। কোভিড হাসাপাতালের মাত্র ৩৭ শতাংশ বেডে এখন রোগী ভর্তি বলে স্বাস্থ্যভবন জানিয়েছে।

ছয়দিন আগে পুরভবনে পুরমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রসচিব, পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে এক বৈঠকে আইএমএ রাজ্য সম্পাদক ডাঃ শান্তনু সেন কলকাতায় থানা ভিত্তিক ডাক্তারদের তালিকা দেওয়ার প্রস্তাব দেন। সেই মত আইএমএ উত্তরের সিঁথি, চিৎপুর, টালা থেকে শুরু করে  দক্ষিণের পাটুলি, পূর্ব যাদবপুর, ঠাকুরপুকুর,  বেহালা থানা এলাকার ডাক্তারের তালিকা ও ফোন নম্বর পুলিশ কমিশনারকে পাঠিয়েছেন। তালিকায় মন্ত্রী ডাঃ শশী পাঁজা যেমন আছেন তেমন স্বয়ং ডাঃ সেনও রয়েছেন।  রাজ্য আইএমএ (IMA) সম্পাদকের কথায়,“প্রতিটি আবাসন, বহুতলে নিঃসঙ্গ বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের কাছে ডাক্তারদের তালিকা এবং ফোন নম্বর পৌঁছে যাবে। প্রয়োজন পড়লেই টেলিফোনে বা সশরীরে গিয়ে প্রবীনদের পরামর্শ দেবেন, চিকিৎসা করবেন।” একইসঙ্গে রাজ্যের জেলায় কোভিড ম্যানেজমেন্ট প্রোটোকল মনিটরিং টিমের জন্য ডাক্তারের তালিকাও নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি মুখ্যসচিব ও স্বাস্থ্যসচিবকে পাঠিয়েছে আইএমএ। 

[আরও পড়ুন : মাত্র দশ দিনে ১০০ কোটির রেকর্ড বকেয়া সম্পত্তি কর জমা পড়ল কলকাতা পুরসভায়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement