BREAKING NEWS

২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

টার্গেট কলকাতার নামী স্কুলের পড়ুয়ারা, গোয়েন্দাদের জালে দুই মাদক কারবারি

Published by: Tanujit Das |    Posted: July 13, 2019 4:44 pm|    Updated: July 13, 2019 4:47 pm

Drug traffickers held from Kolkata's Park Circus area

অর্ণব আইচ: মাদক ব্যবসায়ীদের টার্গেটে স্কুল পড়ুয়ারা৷ সূত্র মারফৎ পাওয়া খবরের ভিত্তিতে, এই চক্রের বিরুদ্ধে এবার বড়সড় সাফল্য পেলেন লালবাজারের গোয়েন্দারা৷ শুক্রবার রাতে পার্ক সার্কাস এলাকা থেকে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করলেন তাঁরা৷ ধৃতদের নাম আসগর হোসেন ও আরশদ হোসেন৷ তাদের কাছ থেকে বাজেয়াপ্ত হয়েছে ৫০ গ্রাম ব্রাউন সুগার৷ গোয়েন্দা সূত্রে খবর, পার্ক সার্কাস এলাকার অভিজাত স্কুলগুলির পড়ুয়াদের মধ্যে এই ভয়ংকর মাদকসেবনের নেশা ছড়ানোর কাজ করত এরা৷ ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে এই ধরনের মাদকদ্রব্যগুলি বিক্রি করত তারা৷

[ আরও পড়ুন: কবি সুভাষ স্টেশনে দরজা খুলল না কামরার, ব্যস্ত সময়ে মেট্রো মিস করে ক্ষুব্ধ যাত্রীরা]

লালবাজার সূত্রে খবর, এই দুই মাদক ব্যবসায়ী সম্পর্কে আগাম খবর ছিল তাঁদের কাছে৷ সেমতোই শুক্রবার রাতে পার্ক সার্কাস এলাকার দরগা রোডে জাল বিছিয়ে রাখেন গোয়েন্দারা৷ সাড়ে দশটা নাগাদ দুই সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে দেখেন তাঁরা৷ সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের পাকড়াও করা হয়৷ ধৃতের নাম, পরিচয় জেনে, তাদের হেফাজতে নেন অফিসাররা৷ তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয় ৫০ গ্রাম ব্রাউন সুগার৷ ভারতীয় বাজারে যার মূল্য আনুমানিক ৫০ হাজার টাকা৷ এদের বিরুদ্ধে এনডিপিএস আইনে মামলা দায়ের করেছে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ৷ সূত্রের খবর, শনিবারই ধৃতদের আদালতে পেশ করে, তাদের হেফাজতে নিতে চাইবেন তদন্তকরারীরা৷

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, নিজেদের এই মাদক ব্যবসার কথা স্বীকার করেছেন ধৃতরা৷ তারা জানিয়েছেন যে, পার্ক সার্কাস এলাকার অভিজাত স্কুলের পড়ুয়ারাই ছিল তাদের শিকার৷ ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ভয়ংকর মাদকের নেশা ছড়িয়ে দিতে দীর্ঘদিন ধরে গোপনে কাজ করছে তারা৷ জানা গিয়েছে, ধৃতদের এই স্বীকারোক্তি, অফিসারদের মাথায় চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে৷ কারণ, ডন বসকো ও মহাদেবী বিড়লার মতো অভিজাত স্কুল ওই এলাকায় রয়েছে৷ সেখানকার পড়ুয়াদের কাছেই ধৃতরা মাদক বিক্রি করত বলে অনুমান অফিসারদের৷ সূত্রের খবর, ধৃত দুই মাদক বিক্রেতার থেকে তাদের ক্রেতাদের নাম ও পরিচয় জানার চেষ্টা করবেন তদন্তকারীরা। এর ভিত্তিতেই ওই দুই স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে, সেই ছাত্রছাত্রীদের কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা করবেন তদন্তকারীরা।

[ আরও পড়ুন:  বিরোধীরা থাকলে লাভ নিজেদেরই, তৃণমূল নেতাদের ‘ক্লাস’ নিলেন প্রশান্ত কিশোর ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে