BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জেশপের সিইও ধৃত, আজ জেরা রুইয়াকে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 26, 2016 11:41 am|    Updated: January 9, 2020 2:29 pm

Jessop CEO arrested

স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতা: বারবার রহস্যজনক চুরি এবং দুর্নীতির অভিযোগে এবার গ্রেফতার করা হল জেশপের সিইও অশোক আগরওয়ালকে৷ মঙ্গলবার সিইওকে দমদম থানায় ডেকে দফায় দফায় জেরার পর গ্রেফতার করা হয়৷ ধৃত সিইও-র বিরুদ্ধে কারখানার কর্মীদের প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ রয়েছে৷ কারখানা থেকে যন্ত্রাংশ চুরির দায়ে এদিনই প্রদীপ নন্দী এবং বিশ্বজিত্‍ কর্মকার নামে দু’জনকে গ্রেফতার করে সিআইডি৷ কারখানার বর্তমান এবং প্রাক্তন জেনারেল ম্যানেজারদেরও এদিন ভবানী ভবনে ডেকে জেরা করেন সিআইডির গোয়েন্দারা৷ বুধবার ভবানী ভবনে তলব করা হয়েছে কারখানার মালিক বিতর্কিত শিল্পপতি পবন রুইয়াকে৷

অন্যদিকে, এদিন মিছিল করে নিজেদের মধ্যে আবির খেলে ডেপুটি লেবার কমিশনারের অফিসে গিয়ে হাজিরা দেন জেশপের কর্মীরা৷ মঙ্গলবারই কর্মচারীদের হাজিরা নেওয়া হবে বলে আগেই সিান্ত নিয়েছিল সরকার৷ ধৃত সিইও অশোক আগরওয়াল ২০০৮ সাল থেকে ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না৷ তা সত্ত্বেও তাঁকে প্রতিমাসে দু’লক্ষ টাকা করে বেতন দিয়ে আসছিল মালিকপক্ষ৷ কেন তাঁকে বসিয়ে বসিয়ে এত টাকা বেতন দেওয়া হছিল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কারখানার কর্মীরা৷ কর্মীরাই প্রভিডেন্ট ফান্ডের লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তুলে অশোক আগরওয়ালের বিরুদ্ধে দমদম থানায় এফআইআর দায়ের করেন৷ সেই কারণে অশোক আগরওয়ালের বিরুদ্ধে দমদম থানায় সাতটি মামলা দায়ের হয়৷ এমনকী তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি করে দমদম থানার পুলিশ৷ তখন থেকেই গ্রেফতারি এড়াতে ফেরার ছিলেন অশোক আগরওয়াল৷ এদিন জেরার জন্য তাঁকে ডেকে পাঠায় দমদম থানার পুলিশ৷ দীর্ঘ জেরার পর গ্রেফতার করা হয় তাঁকে৷ এরপর তাঁকে তুলে দেওয়া হয় সিআইডির হাতে৷

জেশপে রহস্যজনক চুরি, অগ্নিকাণ্ড এবং ডানলপেও যন্ত্রাংশ লুঠের তদন্তের দায়িত্ব কয়েকদিন আগেই দেওয়া হয় সিআইডির হাতে৷ এরই মধ্যে জেশপে চুরির ঘটনায় এই কারখানার মালিক পবন রুইয়ার বিরুদ্ধে দমদম থানায় পুলিশ নিজেই অজামিনযোগ্য ধারায় ‘সুয়োমোটো’ মামলা দায়ের করে৷ পাশাপাশি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দমদম থানায় পবন রুইয়ার বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের করে দমকল বিভাগ৷ সবক’টি মামলাই তদন্তের স্বার্থে নিয়ে নেয় সিআইডি৷ গোয়েন্দারা তদন্তে নেমেই কারখানা থেকে যন্ত্রাংশ চুরির দায়ে প্রথম দফায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করে৷ তখনই সিআইডি-র গোয়েন্দা কর্তারা জানিয়েছিলেন, জেশপের কর্ণধার পবন রুইয়াকে জেরার জন্য ভবানীভবনে তলব করা হবে৷ সেই মতো সোমবার জেশপ কর্ণধারকে সমন পাঠানো হয়৷ সেই সমনে বলা হয়, বুধবারের মধ্যে পবন রুইয়াকে ভবানী ভবনে হাজির হতে হবে৷ এখনও পর্যন্ত জেশপ কাণ্ডে গ্রেফতার করা হয়েছে সিইও-সহ ১৬ জনকে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে