BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বধূমৃত্যুতে নয়া মোড়, প্রশ্ন স্বামীর যৌনবিকৃতি নিয়ে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 21, 2016 11:47 am|    Updated: December 21, 2016 1:01 pm

 Kajal’s death has new clue, was her husband a pervert?

কলহার মুখোপাধ্যায়: মেট্রিমনি দেখে জোগাড় হয়েছিল পাত্র৷ ভাল পরিবারে বোনের বিয়ে দেওয়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন দাদা৷ ছোটবেলা থেকেই আদরে মানুষ যে ছোট বোন৷ মোটামুটি দেখেশুনে বিয়ে দেওয়ার পরে যে এমনটা ঘটতে পারে তা এখনও যেন বিশ্বাসই হচ্ছিল না তপন বর্মনের৷ “খোঁজ নিয়েছিলাম যেটুকু পেরেছিলাম৷ তখন বুঝতে পারিনি টাকার জন্য লিঙ্কন এমন কাজ করতে পারে৷” চোখের জল গড়িয়ে পড়ল দাদার৷ নিথর হয়ে থাকা বোন কাজলের কপালে আলতো হাত বুলিয়ে বলে চলেছেন তপন, “বড় আদরে মানুষ হয়েছিল বোনটা৷ নরম স্বভাবের ছিল৷ মনে হয়েছিল বিয়ের পর বোধহয় স্বামী-স্ত্রীর অ্যাডজাস্টমেন্টের সমস্যা হচ্ছে৷ ভেবেছিলাম এমনটা তো হয়ই৷ কিন্তু তার পরিণতি যে…৷” নির্বাক হয়ে কাজলের মুখের দিকে তাকিয়ে নিষ্পলক তপন৷

এরপর আর জি কর মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয় কাজলের দেহ৷ সেখান থেকে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত মৃত্যুর কারণ নিয়ে কিছু মন্তব্য করতে রাজি নয় পুলিশ৷ কাজলের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে চালাতে চেষ্টা করেছিল লিঙ্কন ও তার পরিবার৷ তবে কাজলের দাদা জানিয়েছেন, গলায় দড়ি দেওয়ার কোনও চিহ্ন বোনের গলায় ছিল না৷ উল্টে থুতনি ও গালে আঘাতের চিহ্ন ছিল৷ পণের জন্য বোনকে খুন করা হয়েছে বলে বাগুইআটি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন কাজলের দাদা তপন বর্মন৷ তিনি জানিয়েছেন, বিয়ের সময় সোনার গয়না ইত্যাদির সঙ্গে এক লাখ নগদ দিয়েছিলেন তাঁরা৷ তার পরও অনেক খরচ হয়ে গিয়েছে বলে আরও দশ লাখের দাবি জানায় লিঙ্কন ও তার বাবা নারায়ণ দাস৷ সে টাকাও তাঁরা আস্তে আস্তে দিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন৷ ১৭ ডিসেম্বর লিঙ্কনদের বাড়িতে এসে এই অনুরোধ জানিয়ে যান তাঁরা৷

কাজলের পরিবারের বাকি লোকজন জানিয়েছেন, বউভাতের পর স্বামী লিঙ্কনের যৌন বিকৃতির কথা টের পায় কাজল৷ টাকার বিনিময়ে একাধিক মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক রাখত সে বলে জানতে পেরেছিল কাজল৷ শুধু তাই নয়, বিয়ের দু’দিন পর এক পুরুষ যৌনসঙ্গী নিয়ে কাজলের বেডরুমে চলে আসে সে৷ সঙ্গী হতে কাজলকে বাধ্য করার চেষ্টা করে৷ কিন্তু প্রতিবাদ করে বেডরুম বাইরে থেকে আটকে পালিয়ে অন্য ঘরে আশ্রয় নেন ২৮ বছরের মধ্যবিত্ত পরিবারে বেড়ে ওঠা সহজ সরল মানসিকতার এই গৃহবধূ৷ বাগুইআটির অশ্বিনীনগরে লিঙ্কনের এক প্রতিবেশী জানালেন, কিশোর বয়সের পর যৌন বিকৃতির শিকার হয় লিঙ্কন৷ লোকলজ্জার ভয়ে তার চিকিৎসা করায়নি তার পরিবার৷ তবে এই কথা চাপা থাকেনি৷ এই কারণে বিয়ে হচ্ছিল না লিঙ্কনের৷ তিনি জানিয়েছেন, প্রায় ৭০ হাজার টাকা মাইনের বেশিরভাগটাই পুরুষ ও মহিলা যৌনসঙ্গীর জন্য খরচ করত বিকৃতকাম লিঙ্কন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে