BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

যোগীকে হারাতে মমতাকে পাশে চায় সমাজবাদী পার্টি, অখিলেশের ‘দূতে’র সঙ্গে বৈঠক কালীঘাটে

Published by: Sulaya Singha |    Posted: January 17, 2022 7:20 pm|    Updated: January 17, 2022 8:20 pm

Kiranmay Nanda to meet CM Mamata Banerjee ahead of Uttar Pradesh Election 2022 | Sangbad Pratidin

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: বাংলায় একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিরাট জয় তৃণমূলের। আর তারপর থেকেই জাতীয় স্তরে নরেন্দ্র মোদির বিকল্প মুখ হিসেবে উঠে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম। এবার উত্তরপ্রদেশের ভোটে সেই বিজেপির বিরুদ্ধে এই ফ্যাক্টরকেই কাজে লাগাতে চাইছে সমাজবাদী পার্টি। আর তাই যৌথভাবে লড়াইয়ের প্রস্তাব জানাতে অখিলেশ যাদবের দূত হয়ে কলকাতায় হাজির কিরণময় নন্দ। মঙ্গলবারই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন তিনি।

১০ ফেব্রুয়ারি উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) প্রথম দফার ভোট। তার আগে বিজেপি বিরোধী শক্তিগুলিকে একজোট করাই পাখির চোখ সমাজবাদী পার্টির। যোগী সরকারকে ধরাশায়ী করতে পার্টি সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব (Akhilesh Yadav) এবার হাত ধরতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের। আর এই নিয়েই আগামিকাল বিকেল সাড়ে ৪টেয় কালীঘাটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সঙ্গে বৈঠকে বসবেন কিরণময় নন্দ। যার জন্য আজই তিনি কলকাতা পৌঁছে গিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে বৈঠকের পর এককভাবে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে পারেন তিনি।

[আরও পড়ুন: COVID-19 Vaccination: কবে করোনার টিকা পাবে ১২-১৪ বছর বয়সিরা? ইঙ্গিত দিল কেন্দ্র]

কিরণময় নন্দ জানান, উত্তরপ্রদেশে বিজেপির বিরুদ্ধে যৌথভাবে লড়াই করতে চায় সপা ও তৃণমূল। অন্তত অখিলেশ যাদব সেই ইচ্ছাই প্রকাশ করেছেন। রাম রাজ্যের নির্বাচনে তৃণমূল কোনও প্রার্থী না দিলেও সমাজবাদী পার্টিকে পূর্ণ সমর্থন জানাবে তৃণমূল। এমনকী তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অখিলেশ যাদবের যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করার পরিকল্পনাও রয়েছে।

করোনা আবহেই উত্তরপ্রদেশ ভোটের পারদ চড়ছে। ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ে মরিয়া সপা ও বিজেপি। এই পরিস্থিতিতে মমতাকে সামনে রেখে যুদ্ধক্ষেত্রে নামতে চাইছেন অখিলেশ। তবে কি মুলায়ম পুত্রের সমর্থনে উত্তরপ্রদেশে ভোট প্রচারে যাবেন তৃণমূল নেত্রী? কিরণময় নন্দ জানাচ্ছেন, এখনও পর্যন্ত তেমন কোনও পরিকল্পনা নেই। কারণ করোনার জন্য ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত এমনিতেই জারি কড়া বিধিনিষেধ। যদিও সভায় ভিড় হচ্ছে না বলেই ঘুরিয়ে এই পন্থা অবলম্বন করেছে বিজেপি বলেও খোঁচা দেন তিনি। তাই একসঙ্গে ভারচুয়াল কর্মিসভায় শামিল হতে পারেন অখিলেশ ও মমতা। করতে পারেন ভারচুয়াল প্রচারও। মঙ্গলবারের বৈঠকেই হয়তো চূড়ান্ত হয়ে যাবে নির্বাচনী প্রচারের রূপরেখা।

[আরও পড়ুন: Madan Mitra: ‘চ্যাপ্টার ক্লোজড’, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ফোনের পর বিতর্কে ইতি টানলেন মদন মিত্র]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে