১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

শহরের রেস্তরাঁয় ফের পচা মাংসের আতঙ্ক, অভিযোগ দায়ের মুচিপাড়া থানায়

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 9, 2018 8:11 pm|    Updated: July 9, 2018 8:54 pm

Kolkata eatery serves rotten meat, complaint lodged

অর্ণব আইচ: কিছুতেই যেন শহরবাসীর পিছু ছাড়ছে না পচা মাংসের আতঙ্ক৷ এই ঘটনা সামনে আসার পর থেকেই কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে প্রশাসন৷ বিভিন্ন হোটেল ও রেস্তরাঁয় পচা মাংস ও পচা খাদ্য বিক্রি বন্ধে অভিযান চালিয়েছেন প্রশাসনিক কর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা৷ কিন্তু তারপরও যেন মিটছে না সমস্যা৷ এবার, পচা মাংস বিক্রির অভিযোগ উঠল শেক্সপিয়র সরণির একটি ধাবার বিরুদ্ধে৷ ইতিমধ্যে, এই অভিযোগে মুচিপাড়া থানায় দায়ের হয়েছে মামলা৷ তদন্ত শুরু করেছে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ৷

[শহরের রাস্তার ক্ষতস্থান চিহ্নিত করল ট্রাফিক পুলিশ, পুজোর আগেই সংস্কারের আশ্বাস]

ঘটনার সূত্রপাত পরশু অর্থাৎ শনিবার রাতে৷ ওই দিন ক্রিক লেনে এক আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়েছিলেন স্টিভেন সৌরদীপ ঘোষ নামের এক যুবক৷ সেখানে গিয়ে, শেক্সপিয়র সরণির এক ধাবায় মাংসের একটি পদ অর্ডার দিয়েছিলেন তিনি৷ বাড়িতেই তাঁদের খাবার পৌঁছে দিয়েছিল সেই ধাবা৷ এই পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল৷ অভিযোগ, সেই খাবার মুখে দিয়েই কার্যত বমি করে ফেলার উপক্রম হয়েছিল সৌরদীপ ঘোষের৷ কারণ, মাংস থেকে আসছিল পচা গন্ধ৷ অভিযোগকারী স্টিভেনের আরও অভিযোগ, এরপর সেই মাংস ধাবা কর্তৃপক্ষের কাছে নিয়ে গেলে তারা বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করে৷ কার্যত উড়িয়েই দেয় তাঁদের অভিযোগ৷ এরপরই মুচিপাড়া থানার দ্বারস্থ হন স্টিভেন সৌরদীপ ঘোষ৷ পচা মাংস বিক্রির পাশাপাশি অভিযোগে তাঁরা সন্দেহ প্রকাশ করেছেন কীসের মাংস তাঁদের দেওয়া হয়েছিল সেই বিষয়েও৷ আবারও শহরের রেস্তরাঁর বিরুদ্ধে পচা মাংস বিক্রির অভিযোগ ওঠায় নড়েচড়ে বসে প্রশাসন৷ খবর যায়, এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চে৷ ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্তও শুরু করেছে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ৷

[অকারণে হর্ন, দুর্ঘটনা এড়াতে প্রচারে ‘মুন্নাভাই’]

ভাগাড় কাণ্ড সামনে আসার পরেই কার্যত চিন্তার ভাঁজ পড়েছিল রাজ্য প্রশাসনের মাথায় এবং আতঙ্ক বাসা বেঁধেছিল সাধারণ মানুষের মনে৷ পচা মাংস ছাড়াও বিভিন্ন হোটেল-রেস্তরাঁয় অভিযান চালিয়ে উদ্ধার হয়েছিল মৃত প্রাণীর মাংস, দীর্ঘদিন ফ্রিজে রাখে দেওয়া পনির ইত্যাদি৷ রাজ্যজুড়ে নজরদারি চালানোর জন্য নবান্ন থেকে একটি টিমও তৈরি করে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বিভিন্ন রেস্তরাঁ ও হোটেলে তল্লাশি অভিযানে নেমেছিল কলকাতা পুরসভা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন পুরসভাগুলি৷ তদন্তে পচা মাংস বিক্রি প্রমাণ মেলায় ইতিমধ্যেই বাতিল করা হয়েছে একাধিক রেস্তরাঁ ও হোটেলের লাইসেন্স৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে