BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

টানা বৃষ্টিতে এখনও জলবন্দি কলকাতা-হাওড়ার একাধিক এলাকা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 6, 2016 4:51 pm|    Updated: September 6, 2016 4:51 pm

Kolkata still water locked for continuous rainfall

সংবাদ প্রতিদিন ব্যুরো: রাতভর বৃষ্টিতে কার্যত জলবন্দি কলকাতার বেশ কিছু জায়গা৷ এখনও জলের নিচেই রয়ে গিয়েছে তিলজলা পোস্ট অফিসের রেকর্ড রুম৷ আলিপুরে নেমেছে নৌকো৷ বিস্তীর্ণ এলাকার রাস্তা জলের তলায়৷ শুধু কলকাতা নয়, আশপাশের শহরতলিও জলে ডুবে গিয়েছে গতকাল বিকেলের পর থেকে টানা বৃষ্টিতে৷ উত্তর ২৪ পরগনার বরানগর, বেলঘড়িয়া কয়েকটি এলাকা জলমগ্ন৷

জলের নিচে হাওড়া শাখার ট্রেন লাইনের বেশ কিছুটা অংশ জলমগ্ন৷ আটকে বহু দূরপাল্লার ট্রেন৷ হাওড়ার টিকিয়াপাড়ায় একটি লাইনে জল জমে থাকায় সময় পরিবর্তন করা হয়েছে রূপসী বাংলা, ইস্ট কোস্ট, ধৌলি এক্সপ্রেসের৷ বাতিল করা হয়েছে আটটি ট্রেন৷ দিঘার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন৷ হাওড়া কারশেডে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকছে ট্রেন৷ রবিবারের বৃষ্টিতে হাওড়ার ২৫টি ওয়ার্ড জলের তলায় চলে যায়৷ উত্তর হাওড়া থেকে ময়দানমুখী গাড়ি আসতে পারছে না৷ তীব্র যানজট তৈরি হয়৷ ৪৩টি পাম্প চলছে৷ হাওড়া পুরসভা কন্ট্রোল রুম খুলেছে৷ বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর ত্রাণও পাঠানো হয়েছে কিছু এলাকায়৷

মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় জার্মানি থেকে মনিটরিং করলেও মেয়র পারিষদের তৎপরতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে৷ নিকাশির মেয়র পারিষদ তারক সিং ভগবানের উপর ছেড়ে দিয়েছেন৷ তাঁর সাফ বক্তব্য, “ঘণ্টায় ৬ মিলিমিটারের বেশি বৃষ্টি হলে জল জমবেই৷ গঙ্গায় জোয়ার থাকায় লকগেটও খোলা যায়নি৷” তবে বেলা দশটা নাগাদ লকগেট খুলে দেওয়া হয়৷

এর মধ্যেই দুর্গাপুর ব্যারেজ থেকে ৩৪ হাজার ৪৫০ কিউসেক জল ছাড়ায় অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে৷ আসানসোল-দুর্গাপুরে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে৷ ব্যারেজ থেকে ৫০ হাজার কিউসেকের বেশি জল ছাড়লে হুগলি, বর্ধমান ও বাঁকুড়ার বেশ কিছু অংশে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে৷ অনুমতি না নিয়ে জল ছাড়ার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ডিভিসি কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিচ্ছে সেচ দফতর৷ বাঁকুড়ার ইন্দাসে বাড়ি ভেঙে আট বছরের এক বালকের মৃত্যু হয়েছে৷ জখম আরও এক৷

জল ছাড়া হয়েছে মুকুটমণিপুর জলাধার থেকেও৷ কংসাবতী, শালি নদীর জলস্তর বেড়েছে হু হু করে৷ বিপর্যস্ত বাঁকুড়ার রানিবাঁধ-খাতরা সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা৷ আসানসোলে নাগাড়ে বৃষ্টির ফলে জল জমেছে রানিগঞ্জ, জামুরিয়া, আচার্যপাড়া, বাউরিপাড়া, কুলটির নিয়ামতপুর এলাকায়৷ এদিকে, আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর এখনও নিম্নচাপ রয়েছে৷ গভীর নিম্নচাপ ও মৌসুমি অক্ষরেখার জেরে বৃষ্টি এখনই বন্ধ হবে না৷ তবে দুপুরের পর বৃষ্টির হার কমবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে