২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জোটের পথ খুলে মহেশতলায় বামেদের প্রার্থী ঘোষণা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 2, 2018 7:21 pm|    Updated: May 2, 2018 7:21 pm

Left Front announces candidate for Maheshtala bypolls

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: মহেশতলা বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনেও এবার জোটের বার্তা দিলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু৷ মহেশতলা উপনির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করার পর আজ, বুধবার বিমান বসু সরাসরি কংগ্রেস-সহ সব দলের কাছে সমর্থনের আবেদন জানান৷ একই সঙ্গে এদিন পঞ্চায়েত ভোটে আগে নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশের পরিবর্তে একটি পুস্তিকা প্রকাশ করা হয়৷ পুস্তিকা প্রকাশ করে রাজ্যের ‘গণতন্ত্র’ ফিরিয়ে আনার আবদার জানান বিমান বসুরা৷

মহেশতলা কেন্দ্রে অনেক আগেই প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে দিয়েছে তৃণমূল৷ এবারের তৃণমূলের টিকিটে ভোটে লড়ছেন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের শ্বশুর তথা মহেশতলা পুরসভার চেয়ারম্যান দুলাল দাস৷ দুলালবাবু এই এলাকার প্রয়াত বিধায়ক কস্তুরী দাসের স্বামী৷ মাসখানেক আগেই কস্তুরীদেবী প্রয়াত হন৷ তারপর তৃণমূলের পক্ষ থেকে সেখানকার উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ উপনির্বাচনে তৃণমূলের তরফে হেভিওয়েট প্রার্থী দাঁড় করানোর প্রায় এক সপ্তাহ পর আজ সিপিএমের তরফে প্রভাত চৌধুরিকে টিকিট দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন বিমান বসু৷

কে এই প্রভাত চৌধুরি? আলিমুদ্দিন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই মুহূর্তে প্রভাত চৌধুরি বাম শ্রমিক সংগঠনের নেতা৷ সিটুর গুরুত্ব দায়িত্ব সামলাচ্ছেন বছর ৪৫-এর এই বাম নেতা৷ দীর্ঘ কয়েক বছর জেলা সভাপতির পদেও ছিলেন তিনি৷ সাংগঠনিক ভাবে দক্ষ প্রশাসকের ভূমিকা পালন করলেও প্রত্যক্ষভাবে নির্বাচনে কখনও অংশ নেননি প্রভাতবাবু৷ ফলে, নির্বাচনী অভিজ্ঞতার দিক থেকে আনকোড়া প্রার্থীকে দাঁড় করিয়ে পিছিয়ে থেকে শুরু করা বাম নেতৃত্বের এখন একটাই ভরসা, জোট নীতি৷ যদিও, কংগ্রেসের সঙ্গে সরাসরি জোটে যাওয়ার বিষয়ে আগেই তুমুল আপত্তি উঠেছে হায়দরাবাদের পার্টি কংগ্রেসে৷ বিবৃতি দিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে যাওয়ার পথ পরিষ্কার করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, হবে ইস্যুভিত্তিক সমর্থন৷ তবে, হবে না মঞ্চ আদানপ্রদান৷ ফলে, সরাসরি জোটে যাওয়াও যাবে না৷

তবে, পার্টি কংগ্রেসে যাই হোক না কেন, তা কার্যত মানতে নারাজ বিমানবাবুরা৷ রীতিমতো সাংবাদিক বৈঠক ডেকে উপনির্বাচনে প্রার্থীপদ ঘোষণা করেও অবলীলায় কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গড়ার ডাক দিয়েই ফেললেন বিমানবাবু৷ কারণ, দলের যা অবস্থা, তা জোট না করা ছাড়া আর কোনও বিকল্প নেই বামেদের কাছে৷ নেই লোকবল৷ নেই সংগঠনের জোর৷ তারপর বিপরীতে তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থী, তথা প্রয়াত বিধায়কের স্বামী৷ ফলে, এই মুহূর্তে তৃণমূলের সঙ্গে পেরে ওঠা কঠিন৷ স্বাভাবিকভাবেই, জোট গড়ে যদি জমানত বাজেয়াপ্ত হওয়া রোখা যায়, সেই এখন প্রধান লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়ে বামনেতাদের কাছে৷ এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে