BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফের পুলিশের জালে দমদমের ত্রাস হাতকাটা দিলীপ

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: September 10, 2018 3:16 pm|    Updated: April 20, 2019 4:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভয় দেখিয়ে তোলাবাজি করাটাই ছিল তার পেশা৷ সিন্ডিকেট ব্যবসা ফেঁদে রাতারাতি আকাশ ছুঁয়েছিল প্রতিপত্তি৷ দমদম এলাকায় ছিল অবাধ বিচরণ৷ কিন্তু, সোমবার সমস্ত কিছু থামিয়ে স্থানীয় যুবককে খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হল দমদমের ত্রাস দিলীপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ স্থানীয়রা তাকে হাতকাটা দিলীপ নামেই চেনে৷

[হিন্দু হস্টেলের দাবিতে প্রেসিডেন্সির গেটে তালা, ঢুকতেই পারলেন না উপাচার্য]

পুলিশ সূত্রে খবর, দমদম কালিন্দী এলাকায় ত্রিনাথ দাস নামে এক যুবককে মারধর ও খুনের হুমকি দেয় হাতকাটা দিলীপ ও তার শাগরেদরা৷ এলাকার ত্রাসের রোষের মুখ থেকে কোনও মতে পালিয়ে বাঁচেন ওই যুবক৷ পরে নিজের প্রাণ বাঁচাতে গোটা বিষয়টি লেকটাউন থানায় অভিযোগ দায়ের করেন৷ ভীত সন্ত্রস্ত ওই যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে হাতকাটা দিলীপকে ধরতে অভিযানে নামে পুলিশ৷ পরে দমদম এলাকার একটি গোপন ডেরা থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে তারা৷ আজ, দুপুরে ধৃতকে জেরা করার জন্য সাত দিনের পুলিশি হেফাজত চেয়ে আদালতে আরজি জানিয়েছে লেকটাউন থানার পুলিশ৷ ধৃতকে জেরা করে বাকি শাগরেদদের সন্ধান শুরু করেছে পুলিশ৷

[সমকামে বাড়তে পারে এইডসের প্রকোপ, উদ্বিগ্ন চিকিৎসকরা]

এর আগেও তিনবার জেলের ঘানি টানতে হয়েছে দমদম এলাকার ত্রাস হাতকাটা দিলীপকে৷ ২০১৫ সালের ১৫ মে তোলাবাজি ও সিন্ডিকেট চালানোর অভিযোগে লেকটাউন এলাকা থেকে দিলীপকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ৷ পুরনো একটি খুনের মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আগেই জারি ছিল বলে পুলিশ সূত্রে খবর৷ গত মাস তিনকে ধরেই দিলীপকে খুঁজছিল পুলিশ৷ পরে, রবিবার গভীর রাতে স্থানীয় এক যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নামে তারা৷ গোপন ডেরায় লুকিয়ে থাকা দিলীপকে গ্রেপ্তার করে সোমবারই আদালতে পেশ করা হয়৷ খুন ও বোমাবাজি-সহ একাধিক সমাজবিরোধী কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে হাতকাটা দিলীপের বিরুদ্ধে৷ ২০০৪ সালে বামফ্রন্ট জমানায় নয়াপট্টিতে এক সংঘর্ষে তিন জনের মৃত্যু হয়। সেই খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত হয়ে দিলীপের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছিল৷ ২০১১ সালে অবশ্য জামিনে মুক্তি মুক্তি পাওয়ার কিছুদিন পর থেকেই এলাকায় দাপট শুরু হয় দিলীপের৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement