২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ব্যুরো: লোকসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফলাফল হয়নি দলের৷ অনেক বিধানসভা আসন এবং ওয়ার্ডে বিজেপির তুলনায় পিছিয়ে পড়েছে শাসকদল৷ এমতো পরিস্থিতিতে আগেই দলের মন্ত্রী, নব নির্বাচিত সাংসদ, লোকসভায় পরাজিত প্রার্থী, জেলার পর্যবেক্ষক ও জেলা সভাপতিদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ দলের অন্দরে রদবদল করেছেন তিনি৷ এবার তাঁর টার্গেট দলের একদম তৃণমূল স্তরের জনপ্রতিনিধিরা৷ অর্থাৎ কাউন্সিলররা৷ এবং সেলক্ষ্যেই এবার তৃণমূল পরিচালিত রাজ্যের সমস্ত পুরবোর্ডের কাউন্সিলরদের নিয়ে কর্মী সম্মেলন করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আগামী ১৮ জুন কলকাতার নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে সেই সম্মেলন৷

[ আরও পড়ুন: ‘তাড়াতে পারলে বুঝব দম আছে’, দলের বিরুদ্ধে ফের হুঁশিয়ারি সব্যসাচীর]

সূত্রের খবর, বৈঠকে হাজির থাকবেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম-সহ দলের শীর্ষ নেতারা৷ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির আশাতীত ভাল ফলের পর থেকেই গেরুয়া শিবিরে যোগদানের ঝড় উঠেছে৷ বাম-কংগ্রেসের পাশাপাশি, তৃণমূল থেকেও রোজ দলে দলে নেতা-কর্মীরা যোগ দিচ্ছেন গেরুয়া শিবিরে৷ গত ২৩ মে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত গোটা রাজ্যে শাসকদলের হাতছাড়া হয়েছে ভাটপাড়া পুরসভা৷ দিল্লিতে গিয়ে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের নেতৃত্বে হালিশহর, নৈহাটি ও কাঁচরাপাড়ার সংখ্যাগরিষ্ঠ কাউন্সিলর ইতিমধ্যে যোগ দিয়েছে বিজেপিতে৷ একই অবস্থা উত্তরবঙ্গেও৷ সম্প্রতি বিজেপিতে যোগ দিয়েছে দার্জিলিং পুরসভার ১৭ কাউন্সিলর৷ ফলে সেখানেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে বিজেপি৷ এবং তৃণমূলের হাতছাড়া হওয়ার দিকে এগোচ্ছে, হালিশহর, কাঁচরাপাড়া ও দার্জিলিং পুরসভা৷ প্রশাসক বসিয়ে কোনওক্রমে নৈহাটি পুরসভার ফাঁড়া কাটিয়েছে শাসকদল৷

[ আরও পড়ুন: ‘আমার গলা কেটে দিলেও কাজ করব’, বিদ্যাসাগরের মূর্তিস্থাপন মঞ্চে চ্যালেঞ্জ মমতার ]

একই অবস্থা পুরুলিয়াতেও৷ ২৩ ওয়ার্ড বিশিষ্ট পুরুলিয়া পুরসভা এবং ১৩ ওয়ার্ড বিশিষ্ট রঘুনাথপুর পুরসভাতে ভাঙনের আশঙ্কায় রয়েছে শাসকদল৷ সূত্রের খবর, এই পুরুলিয়া পুরসভার দুই কাউন্সিলর সম্প্রতি বৈঠকও করেছে বিজেপির সঙ্গে৷ সেজন্যই এই দুই পুরসভার কাউন্সিলরদের নিয়ে গত রবিবার বৈঠক করেন জেলার পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের আইন মন্ত্রী মলয় ঘটক৷ বৈঠকে হাজির আরও দুই মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো ও সন্ধ্যারানি টুডু৷ উক্ত বৈঠকে তিন মন্ত্রীর উপস্থিতিতেই ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানও দেন দুই কাউন্সিলর৷ যা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে তৃণমূল নেতৃত্ব৷ রাজনৈতিক মহলের মতে, দলের নিচুতলায় এই ভাঙন আটকাতেই তৃণমূল সুপ্রিমোর এই পদক্ষেপ৷ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল যাতে কোনও ভাবেই দলের তৃণমূল স্তরে হতাশার পরিবেশ তৈরি না করে, সেজন্যই আগামী ১৮ তারিখ মুখ্যমন্ত্রী কাউন্সিলরদের সঙ্গে সম্মেলন করবেন৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং