BREAKING NEWS

৯ কার্তিক  ১৪২৮  বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জনসংযোগে জোর, ভবানীপুরে ঘরোয়া আড্ডায় ‘ঘরের মেয়ে’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 13, 2021 4:53 pm|    Updated: September 13, 2021 7:36 pm

Mamata Banerjee at Bhabanipur ahead of bypoll | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাস শেষেই ভবানীপুরে উপনির্বাচন। কোভিড পরিস্থিতিতে বড় জনসভা বাতিল হয়েছে। বদলে ছোট ছোট স্ট্রিট কর্নার এবং বাড়ি-বাড়ি গিয়ে জনসংযোগে জোর দিচ্ছে তৃণমূল। এবার পথে নেমে জনসংযোগ সারলেন খোদ তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (TMC leader Mamata Banerjee)। কুশল সংবাদ নিলেন সকলের।

সোমবার নবান্ন থেকে ফেরার পথে ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের ৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে হাজির হন মমতা। সঙ্গে ছিলেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও। সেখানে বাড়ি-বাড়ি গিয়ে অনেকের সঙ্গে কথা বলেন তৃণমূল নেত্রী। সকলের কুশল সংবাদ নেন তিনি। অনেকের হাত ধরে কুশল বিনিময়ও করেন। এদিন তিনি আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন কেন ‘ভবানীপুরের ঘরের মেয়ে’ তিনিই।

[আরও পড়ুন: কলকাতায় মিলল আফ্রিকায় রোগ ছড়ানো মশা, ডেঙ্গু-ম্যালেরিয়া প্রকোপের মাঝে চিন্তা বাড়ল দ্বিগুণ]

ভবানীপুরে জনসংযোগে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: অরিজিৎ সাহা।

৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে ঘুরে ঘুরে মমতা শুরু করেন জনসংযোগ। সকলের সঙ্গে ঘরোয়া আড্ডা চলে বেশ কিছুক্ষণ। খিদিরপুরের ২৫-এর পল্লি দুর্গা পুজোর পাড়া থেকে ১৬ আনা মসজিদ হেঁটে ঘুরে বেড়ান তিনি। কথা বলেন সকলের সঙ্গে। এলাকাবাসীর সঙ্গে বসে আড্ডার ছলে কথা বলেন তিনি। ১৬ আনা মসজিদে ইমামদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ সারেন তিনি। 

[আরও পড়ুন: পুজোর আগে ফের সুখবর, চলতি সপ্তাহ থেকে বাড়ছে মেট্রোর সংখ্যা]

আট ওয়ার্ডের দায়িত্ব ইতিমধ্যে দেওয়া হয়েছে দলের হেভিওয়েট পাঁচ নেতার হাতে। ঠিক হয়েছে নিয়ম করে সকালের দিকে ভবানীপুরের পাড়া ঘুরবেন তাঁরা। ঠিক যেমন শনিবার বেরিয়েছিলেন এলাকার বাসিন্দা পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। এলাকার মহিলাদের দায়িত্ব বিকেলের দিকে। পাঁচজন করে একটি দলে ভাগ হয়ে তারাও যাবেন বাড়ি-বাড়ি।

দরকারে বাড়ি বসে চলবে সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা। ঘরের উঠোনে বসে প্রচারের এই বৈঠকি আমেজ তৈরির জন্যই এলাকার মেয়েদের কথা ভাবা হয়েছে। কোন পরিবারের কার কী সমস্যা, কে কোন পরিষেবা পাননি– তার সবটাই বাড়ি গিয়ে খোঁজ নেওয়া হবে। তার সঙ্গে বাংলা, হিন্দি ও ইংরেজি ভাষায় তৈরি হয়েছে লিফলেট। এলাকার নানা ভাষাভাষী মানুষের কথা ভেবেই তা তৈরি হয়েছে। কবে কোন এলাকায় যাওয়া হবে, কোন এলাকায় বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হবে, তা প্রতিদিন বসে ছকে নেওয়া হচ্ছে। প্রতি মুহূর্তে কমিশনের নির্দেশের দিকে খুঁটিনাটি নজর রাখা হচ্ছে। দলের তরফ থেকে এটিই প্রাথমিক প্রচার পরিকল্পনা তৃণমূলের। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement